সংবাদ শিরোনাম

মুসলিম হওয়ায় বিতাড়িত করেছিলেন ট্রাম্প, আবার ফিরলেন হোয়াইট হাউসেশনিবারের পর ওবায়দুল কাদেরের প্রতি আর শ্রদ্ধা থাকবে না: কাদের মির্জারংপুরে আল্লাহর গুণবাচক নামের দৃষ্টিনন্দন স্তম্ভ হচ্ছেমহানবীর (সা.) ১৪০০ বছর আগের যে বাণী সত্য প্রমাণ পেল বিজ্ঞানজামালপুরে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল বৃদ্ধারকালীগঞ্জে জন্ম নিবন্ধন কার্ড বিতরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগবাইডেন প্রশাসনে বিএনপি নেতা ড. মঈন খানের ভাগ্নি!প্রধানমন্ত্রীর পা ধরে হলেও আপনাদের প্রত্যাশা পূরণ করব : নানকহবিগঞ্জে স্কুলছাত্রকে হত্যা করে ফোনে অভিভাবকের কাছে চাঁদা দাবি, আটক ৩গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় সবজি ব্যবসায়ী নিহত

  • আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইদহে কাউন্সিলরের মায়ের নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড বানানোর অভিযোগ !

আরাফাতুজ্জামান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুরের পৌর কাউন্সিলর বাবুল আক্তার তার মায়ের নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড করিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে কাউন্সিলর বাবুল আক্তার জানান, আমার মায়ের নাম নারী কাউন্সিলর দিয়েছেন। আমি দেইনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশাফুর রহমান জানান, মহেশপুরে পৌর কাউন্সিলর বাবুল আক্তার তার মায়ের নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড ইস্যু করেছেন। অভিযোগ পেয়ে আমি নিজেই প্রতিটি ব্যক্তির বাড়িতে গিয়ে কার্ড পৌঁছে দিচ্ছেন।

সমাজসেবা অফিসের তথ্যমতে জানা গেছে, সর্বনিম্ন ৬৫ বছর বয়সের পুরুষ ও ৬২ বছর বয়সের নারী যারা অসচ্ছল, জমিজমা নেই, বিধবা, সন্তানহীন তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরিপত্রে কার্ড দেয়ার কথা বলা রয়েছে। অসচ্ছল বয়স্ক, বিধবা ও পঙ্গু ব্যক্তিদের সরকার প্রতিমাসে ভাতা দিয়ে থাকেন ব্যাংকের মাধ্যমে।

সেখানে এলাকার জনপ্রতিনিধি ও বিশিষ্ট ব্যক্তিরা যাচাই-বাছাই করে অসচ্ছল বয়স্ক ব্যক্তিদের নামের তালিকা উপজেলা সমাজসেবা দফতরে জমা দেন। সেই তালিকা অনুযায়ী সরকার তাদের প্রতি মাসে ৪০০ টাকা করে ভাতা প্রদান করে।

পৌরসভার মেয়র আব্দুর রশিদ খান দাবি করেন, আমার জানা মতে প্রকৃত ব্যক্তিদের বয়স্ক ও বিধবা ভাতার কার্ড দেয়া হয়েছে।

Sharing is.

Share on facebook
Share On Facebook
Share on whatsapp
Share On WhatsApp
Share on twitter
Share On Twitter