সংবাদ শিরোনাম
টাঙ্গাইলে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার | বগুড়ায় ৩শ বিঘা আবাদি জমি পানিবন্দি, শ্যালো মেশিন দিয়ে উদ্ধারের চেষ্টা | মির্জাপুরে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষ্যে বৃক্ষরোপন | মাস্ক কেলেঙ্কারি: জেএমআই’র চেয়ারম্যান ৫ দিনের রিমান্ডে | প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে স্পেনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত | প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে মিরপুরে যুবমহিলা লীগের বিশেষ আয়োজন | আলোচিত রিফাত হত্যার রায় বুধবার | সুনামগঞ্জে প্রবাসী স্ত্রীকে ভিডিও কলে রেখে স্বামীর আত্মহত্যা | সরকার পতনের লক্ষণ স্পষ্ট হয়ে উঠছে : রিজভী | প্রকল্পের ডকুমেন্ট বাংলায় তৈরির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর |
  • আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিশ্বের প্রথম ১০০০টি প্রসেসরযুক্ত চিপ

১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, জুন ২০, ২০১৬ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

bisser-prothom

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক –   বিশ্বের প্রথম ১০০০টি প্রসেসর-যুক্ত চিপ গড়ে নজির তৈরি করলেন বিজ্ঞানীরা। তাঁদের দাবি, এটি প্রতি সেকেন্ডে ১.৭৮ ট্রিলিয়ন নির্দেশ পালন করতে পারবে।

নয়া এই চিপটির নাম রাখা হয়েছে কিলোকোর। বিজ্ঞানীদের দাবি, এটি ৬২১ মিলিয়ন ট্রানজিস্টরযুক্ত।
”আমরা যত দূর জানি, এটাই বিশ্বের প্রথম ১০০০টি প্রসেসরযুক্ত চিপ। শুধু তাই নয়, এটির সঙ্গেই প্রথম যুক্ত হয়েছে সর্বোচ্চ ক্লক রেটওয়ালা প্রসেসর যা একটা বিশ্ববিদ্যালয়ে তৈরি হয়েছে”, জানিয়েছেন ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার অধ্যাপক বেভান বাস। তাঁর নেতৃত্বেই এই চিপ তৈরি করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত উল্লেখ না করলেই নয়, এর আগে যে সব মাল্টিপল প্রসেসর চিপ তৈরি হয়েছে, তারা কেউই ৩০০টি প্রসেসরের সীমা পেরোতে পারেনি। এই সব চিপগুলোর বেশির ভাগই তৈরি হয়েছিল কোনও না কোনও গবেষণার স্বার্থে। কিছু অবশ্য বাণিজ্যিক ভাবে বিক্রিও হয়েছিল বাজারে।
তা, এর আগে যে সব মাল্টিপল প্রসেসর চিপ তৈরি হয়েছিল, সেগুলোর চেয়ে এটা আলাদা কোথায়? শুধু সংখ্যার দিক থেকেই নয়, এর প্রত্যেকটি প্রসেসর কোর অন্যের উপর নির্ভর না করে স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারে। এখানেই শেষ নয়, প্রত্যেকটিই কাজ করতে পারে একই সময়ে, পরস্পরের সমান্তরালে।
এছাড়া যেহেতু প্রত্যেকটি প্রসেসরেরই আলাদা আলাদা ভাবে সময় বাঁধা, সেই জন্য দরকারমতো যে কোনও একটা বা অনেকগুলোকে শাট ডাউনও করে দেওয়া যাবে। পাশাপাশি, দরকার মতো একটার থেকে অন্যটায় ডেটা ট্রান্সফারও করা যাবে সহজেই।
বলাই বাহুল্য, আবিষ্কৃত এই চিপটির গুণ বর্ণনা করতে গিয়ে থামার নামই নিচ্ছেন না ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার বিজ্ঞানীরা। তাঁরা জানিয়েছেন, যে কোনও আধুনিক ল্যাপটপ প্রসেসরের চেয়ে এই চিপটির ১০০০টি প্রসেসরের প্রত্যেকটিই ১০০ গুণ বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন। ওয়্যারলেস কোডিং/ডিকোডিং, ভিডিও প্রসেসিং, এনক্রিপশন, ডেটা অ্যাপ্লিকেশন এবং ডেটা সেন্টার রেকর্ড প্রসেসিংয়ের মতো নানা অ্যাপ্লিকেশন ডেভলপ করা রয়েছে চিপটিতে।
চিপটির প্রোগ্রামিংয়ের জন্য অটোমেটিক প্রোগ্রামিং ম্যাপিং টুলও ইতিমধ্যেই তৈরি করে ফেলেছেন বিজ্ঞানীরা।