• আজ মঙ্গলবার, ৬ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার নিয়ে ফুফাতো ভাইয়ের সাথে পালালেন দুই সন্তানের জননী


❏ মঙ্গলবার, জুন ২১, ২০১৬ খুলনা, দেশের খবর

paikgasa wife-

এন. ইসলাম সাগর. পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি: পাইকগাছায় প্রেমজ সম্পর্কের সূত্রধরে ফুফাতো ভাইয়ের হাতধরে শিশু সন্তানকে নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছে দুই সন্তানের জননী রওশানারা বেগম। স্বামী বাড়ীতে না থাকায় গত বুধবার তিনি নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার নিয়ে ফুফাতো ভাই রফিক জোয়াদ্দারের সাথে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় স্ত্রী সন্তানকে ফিরে পেতে গত সোমবার স্বামী দাউদ আলী সরদার বাদী হয়ে পাইকগাছা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছে।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, পাইকগাছা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের গোপালপুর গ্রামের সাজ্জাত আলী সরদারের ছেলে দাউদ আলী সরদার (৪২) ২০০০ সালে পাশ্ববর্তী তালা উপজেলার নলতা গ্রামের মৃত ওমর সরদারের মেয়ে রওশানারা বেগম (৩২) কে বিয়ে করেন। বর্তমানে তাদের সংসারে দুইটি ছেলে সন্তান রয়েছে। বড় ছেলে ৯ম শ্রেণি এবং ছোট ছেলে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে। এদিকে দাউদ আলী ২০১৩ সালে শ্রমের কাজ করতে ওমানে যান। সেখানে প্রায় বছর খানেক থাকার পর হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে দেশে ফেরত আসেন। বিদেশে থাকা কালীন সময়ে তার স্ত্রী রওশানারা তার ফুফাতো ভাই উপজেলার মাহমুদকাটী গ্রামের মৃত আবুল হোসেন জোয়াদ্দারের ছেলে রফিক জোয়াদ্দার (৪১) এর সাথে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দেশে আসার পর বিষয়টি নিয়ে দাউদ তার স্ত্রীকে বার বার সতর্ক করলেও কোন কিছুকে তোয়াক্কা না করে প্রেমজ সম্পর্ক বজায় রাখে। এ নিয়ে একাধিক বার এলাকায় শালিসী বৈঠক হয়।

সর্বশেষ দাউদ আলী ব্যবসায়ীক পণ্য ক্রয় করতে গত বুধবার দুপুরে যশোরে যায়। এ সুযোগে স্ত্রী রওশানারা ছোট ছেলে নাজমুল হাসান ও প্রায় আড়াই লাখ টাকার নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার নিয়ে ফুফাতো ভাই রফিক জোয়াদ্দারের সাথে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর স্ত্রী ও শিশু সন্তান নাজমুলকে ফিরে পেতে প্রতারক রফিক ও স্ত্রী রওশানারা কে বিবাদী করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছে স্বামী দাউদ আলী। যার নং- সিআর ৪৩১/১৬, তাং ২০/০৬/১৬ ইং। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে দাউদ আলী ও তার পরিবার।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন