সংবাদ শিরোনাম
পদ্মায় অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন দুই শতাধিক লঞ্চযাত্রী | মানিকগঞ্জে সাংবাদিকদের উপর হামলা, আটক ১ | স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রসূতি নারীকে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ নার্সদের বিরুদ্ধে | স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: ফরিদপুরে এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড | এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণকাণ্ডে আরেক ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার | ‘নারীর দিকে আড়চোখে তাকাবে, এমন কর্মী ছাত্রলীগে নেই’- লেখক | এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগকর্মী রনির পর গ্রেফতার রবিউল | শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন আজ | কুড়িগ্রামে আবারো বন্যা, ঘর-বাড়িতে পানি ঢুকে পড়ায় দুর্ভোগে মানুষজন | এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনায় আদালতে ধর্ষিতা গৃহবধূর জবানবন্দি |
  • আজ ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘বিচারপতিকে বিচার করতে অনেক কিছু বিবেচনা করতে হয়’

৩:৩৮ অপরাহ্ণ | রবিবার, জুন ২৬, ২০১৬ জাতীয়

biccerpoti

কালিয়াকৈর প্রতিনিধি: প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, একজন বিচারপতিকে বিচার করতে অনেক কিছু বিবেচনা করতে হয়। আমাদের জেল কোড অনেক পুরাতন। এটা নিয়ে ব্রিটিশ আমলে অনেক জগাখিচুড়ি হয়েছে। যাবজ্জীবন কারাদন্ড নিয়ে এক ধরনের বিভ্রান্তি রয়েছে। এটা নিয়ে অপব্যাখ্যাও রয়েছে। যাবজ্জীবন অর্থই হল যাবজ্জীবন।

তিনি আজ রবিবার দুপুরে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন।

এ সময় তার সাথে কারা মহা-পরিদর্শক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখারুজ্জামান, জেলা প্রশাসক এসএম আলম, পুলিশ সুপার হারুন-অর-রশীদ সহ কারাগারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান বিচারপতি এ সময় আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যা, জেল হত্যা, যুদ্ধাপরাধী সহ অনেক মামলার রায় আমি দিয়েছি। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় কিছু ত্রুটি ছিল। সেগুলো আমি সংশোধন করতে পেরেছি। জেল হত্যা মামলায় দুঃখজনক হলেও সত্যি, আমি একাই ডিসেনটিং রায় দিয়েছিলাম। সেখানে ষড়যন্ত্র ছিল, প্রমাণিত হল। ষড়যন্ত্রের জন্য তাদের শাস্তি হল না, আমি স্তম্ভিত হলাম। পরিকল্পিতভাবে হত্যার জন্য যারা পরিকল্পনা করেছে তাদের প্রত্যেকের শাস্তি হওয়া উচিত।

এর আগে প্রধান বিচারপতি কারাগারে এসে পৌঁছলে তাকে গার্ড অব অনার দেয়া হয়। তিনি কারাগারের বিভিন্ন ইউনিট ঘুরে দেখেন এবং বন্দিদের সাথে কথা বলেন।