সংবাদ শিরোনাম
সিলেট এবং খাগড়াছড়িতে ধর্ষণের প্রতিবাদে গাজীপুরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ | শিল্পপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরীর মৃত্যুতে ভূমিমন্ত্রীর শোক | বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড দলকে অভিনন্দন জানালেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী | ‘শেখ হাসিনার জন্যই গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা পেয়েছে’- মেয়র তাপস | ‘নভেম্বরে আসতে পারে করোনার ভ্যাকসিন’- স্বাস্থ্যমন্ত্রী | শেখ হাসিনা বাঙালি জাতির বাতিঘর ও কাণ্ডারি: শিক্ষামন্ত্রী | শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা ও এইচএসসি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন শিক্ষামন্ত্রী | দেশে ইতিহাস বিকৃতির জনক জিয়াউর রহমান: কাদের | শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে এগিয়ে নেওয়ার অফুরন্ত প্রেরণা: কাদের | শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বাকৃবি ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল |
  • আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফুলবাড়ীর গৃহবধু ঢাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মর্মান্তিক মৃত্যু

১:৩৫ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, জুন ২৮, ২০১৬ অকালমৃত্যু প্রতিদিন

অনীল চন্দ্র রায়, ফুলবাড়ী প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার গৃহবধু শহিদা বেগম (৩৭) ঢাকা পল্লবী থানার আলোতি পাড়ার ভাড়া বাসাতে রুম পরিস্কার করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে গত সোমবার বিকালে। নিহত শহিদা হলেন উপজেলার চর ধনিরামের মরানদী গ্রামের রাজ মিস্ত্রী আবুবক্করের স্ত্রী।

birdut-esporsa-mirtu

শহিদা বেগমের বাবা ছোবেদ আলী চৌকিদার জানান, গত ১২ বছর আগে মেয়েকে বিয়ে দিয়েছি রাজ মিস্ত্রি আবুবক্করের সাথে। শহিদা ১ মেয়ে ৪ ছেলে জননী। মেয়ে জামাই আগে থেকে রাজ মিস্ত্রির কাজ করে সংসার চালাতেন। ভাল বেতনের আশায় দুই বছর আগে মেয়েকে নিয়ে ঢাকার পল্লবী থানার আলোতি পাড়ায় যান। সেখানে একটি ভাড়া বাসায় থাকেন তারা। সেখানে জামাই আবু বক্কর রাজ মিস্ত্রি কাজ করে ঢাকায় স্ত্রী সন্তানদেরকে নিয়ে সুখেই জীবন যাপন করছে। আবু বক্কর রাজ মিস্ত্রির কাজ করে টাকা উপার্জন করে ঢাকা থেকে প্রতি মাসে কম বেশি টাকা পাঠাতেন গ্রামে থাকা বাবা-মার কাছে।

তিনি আরো জানান, প্রতিদিনেই মোবাইলে মেয়ে শহিদা, জামাই আবু বক্কর সহ নাতি-নাতনীদের সাথে আমার ও আমার পরিবারের সাথে কথা হয়। মেয়ে জামাই ঢাকায় বেশ ভালই ছিল। কিন্তু হঠাৎ করে যখন গতকাল সোমবার বিকালে যখন মেয়ে জামাই মোবাইলে ফোনে জানান আব্বা শহিদা আর নেই সে রুম পরিস্কার করার সময় বিদ্যুৎস্পুষ্ট হয়ে মারা যান। এ দিকে মেয়ের মৃত্যুর সংবাদ শুনে কান্নাই ভেঙ্গে পড়েন বাবা ছোবেদ আলীও মা সাহারা বেগম। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। তাকে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে।