সংবাদ শিরোনাম
হাসপাতাল ছাড়লেন ইউএনও ওয়াহিদা | শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত | বাসায় নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ: এবার ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার | পা হারানো রাসেলকে আরও ২০ লাখ টাকা দেওয়ার নির্দেশ | প্রথম আলো সম্পাদকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানির দিন ধার্য | আত্রাইয়ে বন্যার্তদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ | টিম পজিটিভ বাংলাদেশের পক্ষে ৫০০ ছিন্নমূল মানুষকে খাওয়ালেন রাব্বানী | দেবীগঞ্জে বাড়িতে হামলার বিচারের দাবিতে এলাকাবাসীর মিছিল | কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানের হামলায় ভারতীয় সেনা নিহত | বিতর্কিত অঞ্চল না ছাড়া পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার হুমকি আজারবাইজানের |
  • আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কালীগঞ্জে দুটি কলেজে ভর্তিতে অতিরিক্ত ফি আদায়

১:৩৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, জুন ২৯, ২০১৬ খুলনা, দেশের খবর

আরাফাতুজ্জামান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে দুটি কলেজে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ উপেক্ষা করে তারা এ ফি আদায় করছে। মাহতাব উদ্দিন কলেজ ও আলহাজ্ব আমজাদ আলী ও ফাইজুর রহমান মহিলা কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এ অতিরিক্ত ফি আদায় করছে।

জানা গেছে, এ বছর শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে উপজেলা (মফস্বল) পর্যায়ে সেশন চার্জ সহ সর্বসাকুল্যে ভর্তি ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার টাকা। ১২/০৫/২০১৬ ইং তারিখে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব সোহরাব হোসাইন স্বাক্ষরিত ভর্তির নীতিমালায় এ নির্দেশ দেওয়া হয়।

college

মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও এ দুটি কলেজ অতিরিক্ত ফি আদায় করছে। এ বছর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি বাবদ মাহতাব উদ্দিন কলেজ নিচ্ছে ২ হাজার ৫শ টাকা ও আলহাজ্ব আমজাদ আলী ফাইজুর রহমান মহিলা কলেজ নিচ্ছে ১ হাজার ৫শ টাকা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী জানায়, এ বছর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি বাবদ মাহতাব উদ্দিন কলেজ নিচ্ছে ২৫০০ টাকা ও আলহাজ্ব আমজাদ আলী ফাইজুর রহমান মহিলা কলেজ নিচ্ছে ১৫০০ টাকা। আমি দুই হাজার টাকা দিয়ে মাহতাব উদ্দিন কলেজে ভর্তি হয়েছি।

মাহতাব উদ্দিন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ অতিরিক্ত ফি নেওয়ার কথা অস্বীকার করে জানান, আমার প্রতিষ্ঠানে কারও কাছ থেকে অতিরিক্ত ফি আদায় করা হয়নি। আমি ২শ টাকা, ৫শ টাকায়ও ভর্তি করিয়েছি। এরপর ‘থ্যাংক ইউ, থ্যাংক ইউ’ বলে তিনি ফোনটি কেটে দেন। পরে অনেকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

আলহাজ্ব আমজাদ আলী ও ফাইজুর রহমান মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিষয়টি প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে স্বীকার করে নেন। তিনি বলেন, কলেজ কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১ হাজার ৫শ টাকা নেওয়া হচ্ছে। আবার অনেকের কাছ থেকে কমও নেওয়া হয়েছে। কলেজের মেয়েদের কাছ থেকে তো বেতন নেওয়া হয় না।