আড়াইহাজারে দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় প্রায় দুই শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা


❏ বুধবার, জুন ২৯, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

এম এ হাকিম ভূঁইয়া, আড়াইহাজার প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা কালাপাহাড়িয়ায় মেঘনা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের গোলাগুলির ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলায় ২০ জনের নাম উল্লেখ্য করা সহ ১৫০ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

mamla

আজ বুধবার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন (ভূমি) সহকারি কর্মকর্তা মোঃ আমীর হোসেন খন্দকার বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযান চালালেও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এমনকি কোনো অস্ত্রও উদ্ধার করতে পারেনি। ওই দিনের সংঘর্ষের এ ঘটনায় চারজন গুলিবিদ্ধ সহ লাঠি ও ধারালো অস্ত্রশস্ত্রের আঘাতে অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছেন। আহতরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল সহ বিভিন্ন সেবা কেন্দ্রে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

আড়াইহাজার থানার ওসি মোঃ সাখাওয়াত হোসেন মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন (ভূমি) সহকারি কর্মকর্তা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ২৬ জুন কালাপাহাড়িয়া এলাকার কদমীরচর এলাকায় মেঘনা নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করে স্থানীয় সাত্তার গ্রুপের লোকজন। ওইদিন জয়নাল গ্রুপের লোকজন বালু উত্তোলনের ড্রেজারটি পুড়িয়ে দেয়। এরই জের ধরে ২৭ জনু ফের দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে সাত্তার গ্রুপ ও জয়নাল গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এ সময় ম্পরম্পরের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এতে গুলিবিদ্ধ সহ আহত হয়েছেন অন্তত ২৫ জন। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কালাপাহাড়িয়া এলাকায় মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই উক্ত দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন