• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। সকাল ৮:৪৫মিঃ

উলিপুরে হিন্দু সম্প্রদায়ের জমি জবর দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন

⏱ | বুধবার, জুন ২৯, ২০১৬ 📁 Uncategorized

খালেক পারভেজ লালু, উলিপুর প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের উলিপুরে একজন ব্যারিস্টার পরিবারের বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু পরিবারের সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টা ও মিথ্যা মামলা দিয়ে নাজেহাল করার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনে উলিপুর পৌর এলাকার রামদাস ধনীরাম রায় পাড়া গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষজন মানববন্ধনে নিজেদের নিরাপত্তা ও হয়রানিমূলক মামলা বন্ধের দাবি জানান।

hindu-manobbondhon

তাদের অভিযোগ ওই গ্রামের বাসিন্দা লন্ডন প্রবাসী ব্যারিস্টার মমিনুল ইসলাম, ছোট ভাই মামুন ও ব্যারিস্টারের স্ত্রী কামরুন নাহার কাকলী নানাভাবে তাদের হয়রানী করে আসছেন। কামরুন নাহার কাকলী বর্তমানে নারায়নগঞ্জ জজ কোর্টে অতিরিক্ত জেলা জজ হিসাবে কর্মরত আছেন। তারা অর্থ ও ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ঐ গ্রামের শ্রীমতি মিনতি রাণী স্বামী রাধানাথ রায় এর জমি জবর দখলের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে নানা ভাবে হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলা দায়ের করছে। এছাড়াও একই গ্রামের রঞ্জু রায় ও রঞ্জন কুমার রায়ের বিরুদ্ধেও ইতিপূর্বে ব্যারিস্টারের ছোট ভাই মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করে। এসব মামলা থানায় এবং কোর্টে মিথ্যা প্রমানিত হলে তার ভাবি অতিরিক্ত জেলা জজ এর প্রভাব খাটিয়ে আবারো একের পর এক মামলা দায়ের অব্যাহত রাখায় ঐ গ্রামের সংখ্যালঘু পরিবার গুলো এখন চরম অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে।

এ অবস্থায় অনেকে দেশ ত্যাগের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে। শুধু তাই নয় প্রভাবশালী ঐ পরিবারটির হয়রানীর শিকার হয়েছে ঐ গ্রামের আবু বক্কর গং পিতা পনির উদ্দিন সহ অনেক নিরীহ মানুষ। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকার যখন কঠোর ভূমিকা অব্যাহত রাখছে ঠিক সে মহুর্তে এখানে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টে একটি পরিবার মরিয়া হয়ে উঠেছে। ইতোমধ্যে ব্যারিস্টার মমিনুল ওই গ্রামের মিনতি রাণী রায়ের জমি স্বাক্ষর জালিয়াতি করে আত্মসাতের চেষ্টা করায় সেখানে এখন তোলপাড় চলছে। নির্যাতিত পরিবার গুলো এ ব্যাপারে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ দাবি করেন। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মিনতী রাণী রায়, কল্পনা রাণী রায়, উলিপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু সাঈদ সরকার, হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের নেতা ঋত্বিক সরকার, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক প্রনয় সরকার প্রিতম, স্থানীয় বিএনপি নেতা আব্দুল্লা হেল বাকীবীর, সাবেক ছাত্র নেতা মিজানুর রহমান লিটন, খলিলুর রহমান, রাধা রায়, সৌরভ সরকার সহ স্থানী গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। ব্যারিস্টার মমিনুল ইসলাম ও ব্যারিস্টারের স্ত্রী কামরুন নাহার কাকলীর সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে বলেন, আমাদের নামে যে অভিযোগ করেছেন সব মিথ্যা।