জামিনে মুক্তি পেলেন আসামি ফরিদ আহমেদ

২:০৮ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ১, ২০১৬ ফিচার

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার আসামি ফরিদ আহমেদ গতকাল বৃহস্পতিবার জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। উচ্চ আদালত থেকে অন্তর্বর্তী জামিনের আদেশ টাঙ্গাইল কারাগারে পৌঁছার পর তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয় বলে কারাগার ও আদালত সূত্র জানিয়েছে।
গোয়েন্দা পুলিশ তাঁকে ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে গ্রেপ্তার করে। তারপর থেকে তিনি কারাগারে ছিলেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি ফারুক হত্যা মামলায় যে ১৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয় তার মধ্যে ফরিদ আহমেদও রয়েছেন।

tangailঅভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, ফারুক আহমেদ হত্যার ব্যাপারে আমানুর ও তাঁর ভাইয়েরা যখন ষড়যন্ত্র করেন, সে সময় এবং হত্যাকাণ্ডের সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন ফরিদ। ফারুক হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ১৪ জন আসামির মধ্যে ১০ জনই পলাতক রয়েছেন। ফরিদ আহমেদসহ চারজন বিভিন্ন সময় গ্রেপ্তার হন। এর মধ্যে কেবল ফরিদই প্রথম জামিনে মুক্তি পেলেন।

উল্লেখ্য ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ফারুক আহমেদের গুলিবিদ্ধ লাশ তাঁর কলেজপাড়া এলাকার নিজ বাসার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। ফারুক আহমেদের স্ত্রী নাহার আহমেদ বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে একটি মামলা করেন। পরে পুলিশের তদন্তে এই হত্যাকাণ্ডে সাংসদ আমানুর ও তাঁর তিন ভাইয়ের সম্পৃক্ততার বিষয়টি বের হয়ে আসে।