গুলশানে হামলা: নারী, শিশু বিদেশিসহ মোট উদ্ধার ১৩

◷ ৮:১৮ পূর্বাহ্ন ৷ শনিবার, জুলাই ২, ২০১৬ আলোচিত, ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বরঃ গুলশান ২ নম্বরের হলি আর্টিসান বেকারি নামের রেস্টুরেন্ট থেকে জিম্মিদের উদ্ধারে মূল অভিযান শুরু হয়েছে। অভিযান শুরুর ১০ মিনিটের মধ্যেই ৫ জনকে উদ্ধার করে বাইরে নিয়ে আসা হয়েছে।

ঘটনাস্থলে কিছুক্ষণ আগেই ব্যাপক গোলাগুলি হয়েছে। উদ্ধার করা পাঁচজনের পরিচয় তাৎক্ষণিক জানা যায়নি। এদের মধ্যে নারী ও শিশুসহ একজন বিদেশিও আছেন বলে জানা গেছে।

এরপর ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে একটা অ্যাম্বুলেন্স ঘটনাস্থল থেকে বেরিয়ে গেছে। তবে সেখানে ক’জন আছেন তা জানা যায়নি। এখন পর্যন্ত মোট ১৩ জন উদ্ধারের খবর পাওয়া গেছে।

rab-pollice-gulsanএ অবস্থায় ভবনকে কেন্দ্র করে গুলশানের ৪ বর্গ কিলোমিটার এলাকা সম্পুর্ণ সিল করে দিয়েছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। ভবনের চতুর্দিকে শক্তিশালীভাবে অবস্থান নিয়েছে বিজিবি, ডিবি, র্যাব, পুলিশ, সিআইডি, ও অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থার আনুমানিক ১০ হাজার ফোর্স। ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছেন পুলিশের আইজি, ডিএমপি কমিশনার, এসবি প্রধান, র্যাব প্রধানসহ অন্যান্য আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধানগন।

এ পর্যন্ত ভিতরে আটকা পড়া ২০ বিদেশি নাগরিক কি অবস্থায় রয়েছে তা সম্পর্কে কোন তথ্য জানা যায় নি। তবে আটকে পড়া বাংলাদেশি নাগরিকরা নিরাপদে আছেন বলে জানিয়েছেন আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এর আগে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়ার নেতৃত্বে র্যাব ও পুলিশের একটি সমন্বিত দল ঐ ভবনে প্রবেশের চেষ্টা করলে জঙ্গিরা উপর্যুপরি গুলি ও গ্রেনেড নিক্ষেপ করে। এতে ডিবির সহকারি কমিশনার রবিউল ইসলাম ও বনানী থানার ওসি সালাউদ্দিন নিহত হন। এছাড়া পুলিশের এডিসি আবদুল আহাদ, ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার শেখ মারুফ হাসান, ডিবির এসআই জিয়া ইসলামসহ ৩০ জন গুরুতর আহত হন। এদের মধ্যে ৬ জনকে ইউনাইটেড হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, রাত সাড়ে ৯টার দিকে হলি আর্টিসানে হামলা করে কয়েকজন অস্ত্রধারী। “আল্লাহু আকবর” আওয়াজ তুলে হামলা চালিয়ে তারা রেস্টুরেন্টে ঢুকে পড়ে দেশি বিদেশি প্রায় ৪০ নাগরিককে জিম্মি করে। এসময় তারা বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে রেস্টুরেন্টের অবস্থানকারীদের জিম্মি করে। সন্ত্রাসীদের গুলিতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হওয়ার পাশাপাশি আহত হয়েছেন প্রচুর সংখ্যক পুলিশ সদস্য।