• আজ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

গুলশানে ৬ বন্দুকধারী নিহত, ধরা পড়েছে ১ জন: প্রধানমন্ত্রী

১২:৪০ অপরাহ্ন | শনিবার, জুলাই ২, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর: গুলশানের ক্যাফেতে কমান্ডো অভিযান চালিয়ে ১৩ জিম্মিকে জীবিত উদ্ধারের পাশাপাশি ছয় হামলাকারীকে হত্যা করা হয়েছে এবং হামলায় জড়িত একজন জীবিত ধরা পড়েছেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ শনিবার চার লেনে উন্নীত ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-ময়মনসিংহ জাতীয় মহাসড়কের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের সময় গুলশানে জিম্মি উদ্ধার নিয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ওই রেস্টুরেন্টে সাতজন সন্ত্রাসী হামলা করেছিল। তাদের মধ্যে ছয়জনকে হত্যা করতে সমর্থ হয়েছে উদ্ধার অভিযান পরিচালনাকারী কমান্ডো দল। একজনকে আটক করা হয়েছে। ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। অনেককে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

প্রধানমন্ত্রী এ হামলার তীব্র নিন্দা জানান। তিনি বলেন, ‘ইশার আজান দিয়েছে। তারা যাবে নামাজ পড়তে। কিন্তু তারা গেল খুন করতে। হত্যাকারীরা নিজেরাও বাঁচতে পারেনি। তাদের পরিবার কী পেল? যাক হামলাকারীদের আমরা কতল করতে পেরেছি।’

146123_1বাংলাদেশে এই ধরনের ঘটনা এটাই প্রথম উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ভবিষ্যতে এই ধরনের ঘটনা যেন বাংলাদেশে না ঘটে সেটা আমরা চাই। যেখানে এই ধরনের অপরাধীরা থাকবে সেখানে জনগণকে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষ যদি রুখে দাঁড়ায় তাহলে দেশে সন্ত্রাস জঙ্গিবাদের ঠাঁই হবে না।’

এ সময় মিডিয়ার সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গুলশানে সন্ত্রাসী হামলার সময় মিডিয়াগুলো যে ধরনের আচরণ করেছে তা কোনোভাবেই সঠিক ছিল না। টেলিভিশনগুলো সরাসরি সম্প্রচার করছিল। এমনকি র‌্যাবের পোশাক পরার দৃশ্য থেকে শুরু করে র‌্যাব-পুলিশ কীভাবে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করবে, সেটিও দেখানো হচ্ছিল। এটি কোনোভাবেই কাম্য নয়। সন্ত্রাসীরা টেলিভিশন দেখে। তারা এসব খবর দেখে অভিযান সম্পর্কে ধারণা পেয়ে আগে থেকেই প্রস্তুত হয়ে যায়। এসব সংবাদ পরিবেশন ঠিক না।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্সেও সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। অথচ সেসব হামলায় নিহতদের ছবি কিংবা কোনো রক্তাক্ত ছবি দেখানো হয়নি। অথচ আমাদের দেশে মিডিয়াগুলোতে কার আগে কে রক্তাক্ত ছবি প্রকাশ করবে, সেটির প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যায়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিকদের আরো দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে বলেন। এরপর তিনি হামলার ঘটনায় সফল অভিযানের কারণে সেনাবাহিনী, বিজিবি, নৌবাহিনীসহ পুলিশ, র‌্যাব প্রধানদের ধন্যবাদ জানান।