সংবাদ শিরোনাম

মুশতাকের মৃত্যুকে ঘিরে আন্দোলনে বাতাস দিচ্ছে জঙ্গিগোষ্ঠী: তথ্যমন্ত্রীকক্সবাজারে মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে পিতার যাবজ্জীবনস্বাধীনতা ইশতেহার পাঠের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে টাঙ্গাইলে আলোচনা সভাবকেয়া বেতনের দাবিতে চট্টগ্রামে পোশাক শ্রমিকদের সড়ক অবরোধমাদক মামলায় দেশের ইতিহাসে প্রথম ফাঁসির আদেশকৃষকের অনীহা, আমন মৌসুমে ধান-চাল সংগ্রহে ব্যর্থ খাদ্য অধিদফতরনিখোঁজের ৮ দিন পর বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার; পরিবারের দাবি হত্যাখালেদা জিয়ার আবেদন আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীতিস্তা টোল প্লাজায় আট লাখ ৭০ হাজার ভারতীয় রুপিসহ আটক ১শতাধিক যুবকের রঙিন চুল কাটালো পুলিশ

  • আজ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

লেবাননে ১ লাখ ‘কায়েম’ ক্ষেপণাস্ত্র ইসরাইলের দিকে তাক করা আছে: ইরানি কমান্ডার

৩:৪৭ অপরাহ্ন | শনিবার, জুলাই ২, ২০১৬ আন্তর্জাতিক

4bhjdcb6bf81681hpx_800C450


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন সালামি বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল চূড়ান্ত ধ্বংসের মুখে এসে দাঁড়িয়েছে এবং লেবানন থেকে এক লাখেরও বেশি ‘কায়েম’ ক্ষেপণাস্ত্র ইসরাইলের দিকে তাক করা আছে।

তেহরানের জুম্মার নামাজের খোতবার আগে দেয়া ভাষণে এ কথা জানান তিনি। তিনি বলেন, আজ কেবল লেবানন থেকেই এক লাখেরও বেশি ‘কায়েম’ ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়ার জন্য প্রস্তুত অবস্থায় রয়েছে। ইহুদিবাদী ইসরাইল যদি অতীতের মতো হিসাবে ভুল করে তবে এ সব ক্ষেপণাস্ত্র ইহুদিবাদী ইসরাইলের হৃৎপিণ্ডের ওপর আঘাত হানবে। আর এতে আধুনিক কালে ইহুদিবাদীদের মহা বিপর্যয় শুরু হবে।

তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন রকমের ধ্বংসাত্মক ক্ষমতা নিয়ে সুনির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার সক্ষমতাসহ আরো হাজার হাজার দীর্ঘপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র মুসলিম বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রস্তুত অবস্থায় রয়েছে। এ সব ক্ষেপণাস্ত্র অন্যতম বিদ্বেষপরায়ণ এবং কলঙ্ক চিহ্নকে রাজনৈতিক মানচিত্র থেকে চিরদিনের জন্য মুছে দেয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে বলে জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের সামরিক ডকট্রিনের কোনো কৌশলগত গভীরতা নেই। ইহুদিবাদী ইসরাইলের নিয়ন্ত্রণ থেকে অধিকৃত ফিলিস্তিন ভূখণ্ড মুক্ত করার প্রস্তুতি নেয়ার সময় মুসলিম বিশ্বে এসেছে বলেও জানান তিনি।

সালামি আরো বলেন, মুসলিম বিশ্বের ওপর ইসরাইল এবং আমেরিকার আধিপত্য বিস্তারের যুগ শেষ হয়ে গেছে। তাদেরকে এ সত্য উপলব্ধি করতে এবং তাদের নীতি পরিবর্তন করতে হবে বলেও জানান তিনি।