সংবাদ শিরোনাম

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্তরোহিঙ্গা শিশু অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় নারীসহ দু’জন গ্রেপ্তারবেলকুচিতে দূর্বৃত্তদের আগুনে পুড়ে গেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান !জামালপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার মাদ্রাসার শিক্ষক‘করোনাকালের নারী নেতৃত্ব: গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’বগুড়ায় শিক্ষা প্রনোদনা পেতে প্রত্যয়নের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগজামালপুরে ধর্ষণ মামলায় ধর্ষকের যাবজ্জীবনপাবনায় অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান, চারটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার-২উপজেলা আ.লীগের সভাপতিকে ‘পেটালেন’ কাদের মির্জা!কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জা

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কিডনির অসুখ থেকে দূরে থাকার ৯টি পরামর্শ

৬:০০ অপরাহ্ন | শনিবার, জুলাই ২, ২০১৬ আপনার স্বাস্থ্য

9-tips-for-staying-away-from-kidney-disease


স্বাস্থ্য ডেস্কঃ

আমাদের শরীরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ এই কিডনি। অনেকেই এই ভেবে অবহেলা করেন যে শরীরে কিডনি থাকে দুটি আর একটি কিডনি নিয়েও সুস্থ জীবন যাপন করা সম্ভব। কিন্তু একবার ভাবুন তো, আপনার দুটি চোখের মাঝে একটি নষ্ট হলেও তো আপনি বেঁচে থাকবেন, কিন্তু সেভাবে বাঁচতে কি আপনার ভালো লাগবে। দেহের সুস্থতা ও দীর্ঘ আয়ুর জন্য কিডনিকে সুস্থ সবল রাখা অত্যন্ত জরুরী। আজ জেনে নিন এমন ৯টি কাজ, যেগুলো পালন করলে কিডনির যে কোন অসুখের ঝুঁকি কমে যাবে অনেকটাই। আর এগুলোর উল্টো কাজ করলে পরিমাণ হতে পারে ভয়াবহ।

কিডনির অসুখ থেকে দূরে থাকার ৯টি উপায়

১) নিজের খাদ্য তালিকাকে স্বাস্থ্যকর করে ফেলুন। কৃত্রিম রঙ দেয়া খাবার বাদ দিয়ে প্রচুর শাকসবজি ও ফলমূল যোগ করুন। সাথে রাখুন মাছ, বাদাম। মাংস খেলে সেটা হোক চর্বি বাদ দেয়া মাংস।

২) নিয়মিত ব্যায়াম করুন। দিনে কমপক্ষে ৩০ মিনিট। ওজন নিয়ত্রনে থাকবে, সুস্থ থাকবে কিডনি।

৩) ব্লাড সুগার লেভেল নিয়মিত চেক করার ও নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

৪) লবণ খাওয়ার পরিমাণ যতটা সম্ভব কমিয়ে দিন। কাঁচা লবণ একেবারেই খাবেন না। সাথে প্রচুর পানি পান করুন। পরিষ্কার বিশুদ্ধ পানি।

৫) নিয়মিত ব্লাড প্রেসার চেক করান। এবং সেটা স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করুন।

৬) ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাস থাকলে ছেড়ে দিন।

৭) রাসায়নিক ওষুধ খাওয়ার অভ্যাস যতটা সম্ভব পরিহার করুন। একেবারে প্রয়োজন না হলে ওষুধ খাবেন না, এবং সেটা অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ মেনে। চেষ্টা করুন প্রাকৃতিক উপাদানে সুস্থ থাকার।

৮) নিয়মিত নিজের কিডনি চেকআপ করান।

৯) পরিবারে কারো কিডনি অসুখের ইতিহাস আছে কিনা, সেটা জেনে নিন। এবং ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন। একই সাথে নিজের ওজনটা নিয়ন্ত্রণে রাখারও চেষ্টা করুন।