• আজ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বের হয়ে আসছে একের পর চাঞ্চল্যকর তথ্য, নিরাপদে কাদের বের করে দিয়েছিলো জঙ্গীরা ?

১১:২১ পূর্বাহ্ন | রবিবার, জুলাই ৩, ২০১৬ Breaking News, আলোচিত বাংলাদেশ, স্পট লাইট

সময়ের কণ্ঠস্বর-

টানা ১২ ঘন্টার ভয়াবহ জঙ্গী অবস্থান মাত্র ১৩ মিনিটের কমান্ডো অভিযানে ধরাশায়ী হয়ে পড়ে ।  জিম্মি উদ্ধারে পরিচালিত এই অভিযানের নাম দেওয়া হয় ‘অপারেশন থান্ডার বোল্ট’। গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারি রেস্তোরাঁয় জিম্মি  দেশি-বিদেশি নাগরিকদের উদ্ধার করতে শুক্রবার রাতেই উপস্থিত হয় প্যারা কমান্ডো টিম।

শনিবার সকালে কমান্ডো অভিযানে মুক্ত হন তাদের অনেকে। রুদ্ধশ্বাস এই অভিযানে জঙ্গীদের হাতে মৃত্যু হয় বিভিন্ন দেশের সহ বাংলাদেশের মোট ২০ জন নাগরিক ও দুজন পুলিশ অফিসারের । পরে যৌথ অভিযানে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে নিহত হন ৫ জঙ্গী ।

গুলশান ক্যাফেতে ‘হামলাকারীদের’ ছবি সাইট ইন্টেলিজেন্স প্রকাশের পর শনিবার রাতে এই জঙ্গীদের ছবি পুলিশও প্রকাশ করে । পুলিশ এই পাঁচজনের নাম বলেছে- আকাশ, বিকাশ, ডন, বাঁধন ও রিপন। তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানানো হয়নি।

তবে এরপর থেকেই তাদের একের পর এক পরিচয় বেরিয়ে আসছে ফেইসবুকে। পুলিশের দেয়া নামের সাথেও নেই মিল।

আইএসের সাইট ও পরবর্তীতে বাংলাদেশ পুলিশ কতৃক নিহত পাঁচ জঙ্গীর ছবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে একে একে বের হতে শুরু করে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য ।

Capture11

এদিকে আর্টিজান বেকারি রেস্তোরাঁ থেকে ঘটনার সময় নিরাপদে জঙ্গীরাই বের করে দেয় কয়েকজনকে এমন একটি ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে । এই ভিডিও নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠেছে। অনেকেই মনে করছেন তাদের কাছ থেকেই পাওয়া যেতে পারে আরও বেশ কিছু তথ্য ।

সূত্র জানায়, সকালে যখন আর্জেন্টিনার একজন নাগরিক ও বাংলাদেশি একজন বের হয়ে আসেন তারা বাইরে এসে জানায় যে, হোটেলের ভেতরে যেসব বিদেশি ছিল তাদের সবাইকে রাতেই হত্যা করা হয়েছে। তারা কেউ বেঁচে নেই। তবে দেশি কোনো নাগরিককে হত্যা করা হয়েছে কিনা এই রকম কোনো তথ্য তারা যৌথবাহিনীকে দিতে পারেনি। তারা যখন বাইরে এসে বিদেশিদের হত্যা করা হয়েছে বলে জানায়, এরপরই আর এক মুহূর্ত সময় নষ্ট না করে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

হোটেলের পাশের একটি বাড়ি থেকে ভিডিওটি ধারন করেন একজন কোরিয়ান নাগরিক

 

আপডেট

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক – যাকে নিয়ে এত প্রশ্ন ও রহস্য সেই হাসনাতকে অবশেষে আটক করলো পুলিশ । তবে গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বলছেন তাকে আটক বা গ্রেফতার করা হয়নি। ঘটনার তথ্য জানতে এবং যাচাই-বাছাই করতে তাকেসহ আরও কয়েকজনকে গোয়েন্দা হেফাজতে রাখা হয়েছে। বিস্তারিত