সংবাদ শিরোনাম

ফের করোনার সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা, প্রধানমন্ত্রীর তিন নির্দেশনাবাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরও মজবুত হবে: : নরেন্দ্র মোদিসীমানা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বাধা হওয়া উচিত নয়: প্রধানমন্ত্রীগাজীপুরে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে যুবক আটককালকিনিতে পরকীয়া প্রেমিক-প্রেমিকা আপত্তিকর অবস্থায়  আটকজিয়াউর রহমানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য আপত্তিকর: রিজভীনিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বরযাত্রীবাহী বাস ধানক্ষেতে, আহত ১৫রংপুরে ধর্ষণ মামলায় এএসআইসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিটসিরাজগঞ্জে পুত্রবধু ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর গ্রেফতারওবায়দুল কাদের সাহেব আমি রাজাকারের সন্তান নই: কাদের মির্জা

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সারাদেশে টার্গেট কিলিংয়ের বিরুদ্ধে ঝিনাইদহে বিক্ষোভ মিছিল

১২:৩২ পূর্বাহ্ন | মঙ্গলবার, জুলাই ৫, ২০১৬ খুলনা, দেশের খবর

Jhenaidah-1


আরাফাতুজ্জামান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহে সেবায়েত শ্যামানন্দ দাস, পুরোহিত আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলী ও গুলশানে দেশি-বিদেশি হত্যাসহ সারাদেশে টার্গেট কিলিংয়ের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে খুন-ধর্ষন- জঙ্গিবাদ বিরোধী গণআন্দোলন ঝিনাইদহ জেলা শাখা। এ সময় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়। সোমবার দুপুর ১টার দিকে ঝিনাইদহ সদরের মধুপুর শ্রী শ্রী রাধামদন গোপাল বিগ্রহ মঠের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি কমরেড মন্টু ঘোষ, কেন্দ্রীয় যুব ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ কাফী রতন, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠির সহ-সাধারণ সম্পাদক জামশেদ আনোয়ার তপন, ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নেতা শিলামী শুভ, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক নেতা তারিক হাসানসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় কমরেড মন্টু ঘোষ বলেন, আমরা আপনাদের দুঃখ ভাগাভাগি করতে এসেছি। এভাবে মানুষ হত্যা চলতে পারে না। আমাদেরকে আরো সজাগ হতে হবে। সন্ত্রাসীদের ভয়ে ভীতু হওয়া যাবে না। ঐক্যবদ্ধভাবে তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। এক শ্রেণির নরপিশাচরা এ ধরনের কর্মকান্ড করছে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের দেশের মন্ত্রীরা শুধু আশা দেখাচ্ছেন। তারা প্রকৃত সন্ত্রাসীদের ধরতে পারছে না। এভাবে প্রকৃত সন্ত্রাসীরা আড়ালে থাকলে এ ধরনের হত্যাকান্ড বাড়তে থাকবে। সমাবেশে অন্যান্য বক্তারা বলেন, পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকান্ড গুলো ঘটানো হচ্ছে। দেশে এভাবে মানুষ খুন হচ্ছে কিন্তু আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নীরব ভূমিকা পালন করছে। তারা এখন পর্যন্ত কোনো খুনিকে গ্রেফতার করতে পারেনি। মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে শেষে ঢাকা থেকে আসা বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা সেবায়েত শ্যামানন্দ দাস হত্যাকান্ড ঘটানোর স্থান পরিদর্শন করেন। প্রসঙ্গত, শুক্রবার ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় শ্যামানন্দ দাস (৫০) নামের এক সেবায়েতকে মোটরসাইকেলে ৩ দুর্বৃত্ত এসে কুপিয়ে হত্যা করে।

তিনি উত্তর কাষ্টসাগরা গ্রামের শ্রী শ্রী রাধারমন মঠ মন্দিরের সেবায়েত ও নড়াইল সদর উপজেলার মুশুড়ি গ্রামের কিরন সরকারের ছেলে। এর আগে গত ৭ জুন, মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নলডাঙ্গা ইউনিয়নের মহিষা ভাগাড় নামক স্থানে আনন্দ গোপাল গাঙ্গুলী (৬৪) নামক এক হিন্দু পুরোহিতকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা করা হয়। তিনি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নলডাঙ্গা সোনাইখালী মন্দিরের পুরোহিত ছিলেন। নিহত আনন্দ ঝিনাইদহ সদর উপজেলার করতিপাড়ার মৃত সত্য গোপাল গাঙ্গুলীর ছেলে।