সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘তল্লাশি ছাড়া মুসল্লিরা ঈদ জামাতে যেতে পারবে না’

২:৩৬ পূর্বাহ্ন | বুধবার, জুলাই ৬, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

dmp-com.সময়ের কণ্ঠস্বর- মৎস্য ভবন, দোয়েল চত্বর, ইবিএল ও জিরো পয়েন্টে চেক পোস্ট থাকবে। মুসল্লিদের প্রত্যেককে তল্লাশি করে ঈদের জামাতে যেতে দেওয়া হবে। শুধুমাত্র জায়নামাজ নিয়ে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে।

রাজধানীর জাতীয় ঈদগাহের নিরাপত্তার সার্বিক প্রস্তুতির সর্বশেষ অবস্থা পরিদর্শনে এসে মঙ্গলবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জননিরাপত্তার স্বার্থে ব্যাগ নয়, জায়নামাজ সঙ্গে নিয়ে আসবেন। কারণ ব্যাগসহ ঈদগাহ ময়দান ও জাতীয় মসজিদে কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। উৎসবমুখর পরিবেশে ঈদ উদযাপনের জন্য মহানগরী জুড়ে চেকপোস্ট ও তল্লাশির জন্য মোবাইল, ফুট ও মোটরবাইক পেট্রোলটিম থাকবে। ঈদের লম্বা ছুটিতে জানমালের নিরাপত্তায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নিরাপত্তা নিয়ে নির্দিষ্ট কোনো হুমকি নেই। কিন্তু প্রয়োজনীয় সব ধরনের নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। জাতীয় ঈদগাহ, বায়তুল মোকাররম ও অন্য যেসব জায়গায় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সেখানে পোশাক ও সাদা পোশাকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ঈদগাহের আশপাশের ছয়টি জায়গায় চেকপোস্ট থাকবে। সকল এন্ট্রি পয়েন্টের আগেই চেকপোস্টে তল্লাশি করা হবে। এ ছয় পয়েন্ট পর্যন্ত গাড়ি আনা যাবে না।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঈদগাহ ময়দানে প্রবেশের মুখে আর্চওয়ে ও হ্যান্ড মেটাল সার্চ করে প্রবেশ করানো হবে। গত তিনদিন আগে থেকে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানের নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। ঈদের দিন নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হবে। বায়তুল মোকাররমে একই নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। দেশকে ঘিরে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক একটি চক্র সক্রিয়। দেশকে অস্থিতিশীল ও উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে গুলশানে হামলার তদন্ত চলছে। জঙ্গিদের প্রশিক্ষণকারী, অর্থদাতা, আশ্রয়দাতা সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে। গোয়েন্দা সংস্থা এ বিষয়ে কাজ করছে। এ হামলার পর নগরীতে অতিরিক্ত নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে, তবে নগরবাসীর সহযোগিতা প্রয়োজন।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ভয়ের কোনো কারণ নেই, আমরা সর্বশক্তি নিয়োগ করে নিরাপত্তা দেব। গুলশান হামলার ঘটনায় সন্ত্রাস দমন আইনে মামলা হয়েছে। কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট তদন্ত শুরু করেছে। তদন্তকালে সব সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হবে। কে জড়িত কে জড়িত নয় সেটা বলবো না, যারা অংশ নিয়েছে তাদের ফ্যামেলি ব্যাকগ্রাউন্ড, ফেসবুক, কললিস্ট, অতীত কর্মকাণ্ডসহ সব বিষয় পর্যালোচনা করা হচ্ছে। শুধু তাহমিদ ও হাসনাত নয় এ ঘটনায় অনেকেই পুলিশের সন্দেহের আওতায় রয়েছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ঈদের প্রধান জামাত জাতীয় ঈদগাহে সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে। সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ত্রিপল দিয়ে ময়দানের উপরিভাগ ঢেকে দেওয়া হয়েছে।