রাত পোহালেই ঈদ, বৃষ্টি মাথায় নিয়ে চলছে শেষ মুহুর্হের ঈদের কেনা কাটা

৯:৩৫ পূর্বাহ্ন | বুধবার, জুলাই ৬, ২০১৬ দেশের খবর, রংপুর

মোহাম্মদ মানিক হোসেন, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার প্রতিটি হাট বাজারে ঈদ কেনা কাঁটা বেশ লক্ষ করা যাচ্ছে। বৃষ্টির মধ্যে চিরিরবন্দরে শেষ মুহুর্হে জমে উঠেছে ঈদের কেনা কাটা। বৃুষ্টি মাথায় নিয়ে বিশেষ করে রানীরবন্দর গ্রামীর শহরে বিভিন্ন বিপনী বিতানের কাপড়, গার্মেন্টেস, জুতার দোকান, টুপি ও আতরের দোকান সহ ছোট খাট দোকান গুলিতে শেষ মুহুতে ঈদের কেনা কাটা জমে উঠেছে।

ঈদ ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে শেষ মুহুর্তে বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষরা তাদের পরিবার পরিজনের জন্য নতুন জামা কাপড়, জুতা কিনতে ব্যস্ত। বৃহস্পতিবার পবিত্র ঈদুল ফিতর নিশ্চিত করে মাত্র একদিন বাকি থাকায় নিম্নআয়ের মানুষ ছাতা মাথায় দিয়ে আপন জনের জন্য করছে ঈদের কেনা কাটা। এমনি একজন ঈদ কেনাকাটায় আসা জুয়েল রানার সাথে কথা বললে তিনি জানান আমি গার্মেন্টেস এ চাকুরী করি তাই একদিন আগে ছুটি পেয়ে আজ সকালে গাড়ি থেকে নামছি রাত পোহালে ঈদ তাই যেমন করে হোক কেনাকাটা আমাকে করতেই হবে।

পাশাপাশি বিত্তবান মানুষরাও তাদের পরিবারের ছেলে মেয়েদের পছন্দের পোষাক কিনতে ভীড় করছে বিভিন্ন বিপনী বিতানে। বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, দোকান গুলোতে বৃষ্টির মধ্যে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড়।

dinajpurবাড়ীর গৃহিনী, ছোট ছোট ছেলে মেয়ে সহ আবাল বৃদ্ধ বনিতারাও ব্যস্ত ঈদের পছন্দের কেনা কাটায়। গার্মেন্টেস ব্যবসায়ী মেসার্স জিয়া জানান, এবার ঈদে বেচা কেনা ভাল। তার দোকানে বিভিন্ন দেশী বিদেশী কালেকশন থাকায় ক্রেতা সমাগম যেমন বেশী তেমনী বেচাকেনাও ভাল চলছে।

রানীরবন্দর এক দোকান মালিক জানালেন, তার দোকানে মেয়েদের দেশী বিদেশী শাড়ী ও থ্রী-পিচের ব্যাপক চাহিদা। ঈদের বাজারে ক্রেতারা সাধ্যমত কাপড় কিনছেন। পুরো মার্কেটে নিম্ন আয়ের মানুষের ভীর পরিলক্ষিত হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন জুতার দোকান, আতর ও টুপির দোকানে ক্রেতাদের ভীড় দেখা গেছে।