সংবাদ শিরোনাম

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ স্বাধীনতার প্রকৃত ঘোষণা: প্রধানমন্ত্রীনির্মাণকাজ শেষের আগেই ‘মডেল মসজিদের’ বিভিন্ন স্থানে ফাটলআহসানউল্লাহ মাস্টারসহ ১০ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান পাচ্ছেন স্বাধীনতা পুরস্কারঐতিহাসিক ৭ মার্চের সুবর্ণ জয়ন্তী: টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মানুষের ঢলচট্টগ্রাম কারাগারে হাজতি নিখোঁজ, জেলার-ডেপুটি জেলার প্রত্যাহারদেবীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যুকরোনার এক বছর: মৃত্যু ৮৪৬২, শনাক্ত সাড়ে ৫ লাখটাঙ্গাইলে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপনমোবাইল ইন্টারনেট গতিতে উগান্ডারও পেছনে বাংলাদেশমশাল মিছিল থেকে গ্রেফতার ৬ ছাত্রনেতার জামিন

  • আজ ২২শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

লজ্জিত নিবরাসের বাবা-মা, ক্ষমা চেয়ে পাঠালেন বিবৃতি

৩:৪২ অপরাহ্ন | বুধবার, জুলাই ৬, ২০১৬ Breaking News, আলোচিত বাংলাদেশ, স্পট লাইট

সময়ের কণ্ঠস্বর – গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় হামলাকারীদের একজন নিবরাস ইসলামের বাবা-মা নির্মম এ ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন। তারা বলেছেন, ‘আমরা লজ্জিত ও ক্ষমাপ্রার্থী’। সেই সঙ্গে নিবরাসের বাবা-মা স্বজনহারা মানুষ, দেশবাসী ও রাষ্ট্রের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে বিবৃতি দিয়েছেন।

নিবরাসের বাবা নজরুল ইসলাম ও মা লায়লা বিলকিস বিবৃতিতে যারা তরুণদের বিপথগামী করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।

বিবৃতিটিতে বলা হয়, ‘আমরা লজ্জিত ও ক্ষমাপ্রার্থী। আমাদের ছেলে নিবরাস সৎ, বিনয়ী ও শান্ত স্বভাবের ছেলে ছিল। উত্তরায় তার যারা সহপাঠী ছিল, তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে একই রকম উত্তর পাওয়া যাবে। সে নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ত। সেখান থেকে উন্নত শিক্ষার জন্য মালয়েশিয়ার মোনাস বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে সে বাংলাদেশে আসে এবং ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারির ৩ তারিখে নিখোঁজ হয়। যাওয়ার সময় সে একটি চিরকুট লিখে যায়, বলে তার জন্য দোয়া করতে। সে ফিরে আসবে।’

nib

বিবৃতিতে নিবরাসের বাবা-মা আরো বলেন, ‘ছেলে নিখোঁজ হওয়ায় আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ি। আমরা দেশের গোয়েন্দা সংস্থাকে এ ব্যাপারে জানাই। তার সঙ্গে আরো যারা নিখোঁজ হয় তাদের পরিবারও জিডিতে নিবরাসের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে। গত পাঁচ মাস সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়েও নিবরাসকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। ফেসবুকে তাকে ফিরে আসার জন্য আমরা অনেক অনুনয়-বিনয় করি। কিন্তু সব চেষ্টাই ব্যর্থ হয়। অবশেষে গত ২ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারির হামলায় সে জড়িত ছিল বলে আমরা জানতে পারি। আমাদের ছেলে এই হামলায় জড়িত, বিষয়টি জানতে পেরে আমরা লজ্জিত, দুঃখিত এবং ক্ষমাপ্রার্থী। যারা স্বজন হারিয়েছেন, বন্ধুকে হারিয়েছেন, নিবরাসের বাবা-মা হিসেবে তাদের প্রতি শোক প্রকাশের ভাষা আমাদের জানা নেই।’

তারা বলেন, ‘নিবরাস নিজে হাতে ভাত মেখে খেতে পারত না। সেই ছেলের হাতে যারা অস্ত্র, গোলা-বারুদ তুলে দিল, আল্লাহর দরবারে তাদের বিরুদ্ধে নালিশ জানাই। আমরা বিশ্বাস করি, যারা নিবরাসের মতো তরুণদের বিপথগামী করছে, তাদের প্রত্যেককে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী গ্রেপ্তার করে কঠোর সাজা দেবে। সবশেষে আমরা আবারও ক্ষমা চাই, পুরো জাতি, দেশের মানুষ ও বিশ্ববাসীর কাছে।’