• আজ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ইউরো কাপের হাইভোল্টেজ ফাইনালে মুখোমুখি পর্তুগাল-ফ্রান্স

১১:২৭ অপরাহ্ন | শুক্রবার, জুলাই ৮, ২০১৬ খেলা

portugal8


স্পোর্টস ডেস্ক: ইউরো কাপে হাইভোল্টেজ ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে পর্তুগাল-ফ্রান্স। খেতাব জয়ের পাশাপাশি অতীতে হারের জ্বালা মেটানোরও সুযোগ রোনাল্ডোদের কাছে।

উনিশশো পঁচাত্তর সালে শেষবার ফ্রান্সের বিরুদ্ধে জয়ের স্বাদ পেয়েছিল ফিগোর দেশ। তারপর থেকে চার দশক ধরে ফ্রান্সের কাছে শুধু হারতেই হয়েছে পর্তুগালকে। একচল্লিশ বছর। চার দশক ধরে শুধুই হারের মুখ দেখতে হয়েছে। এবার বদলা নেওয়ার সুযোগ। ইউরো কাপের মেগা ফাইনালে ফ্রান্সের মুখোমুখি পর্তুগাল। শক্তির দিক দিয়ে এবারের ইউরোতে ফ্রান্স ও পর্তুগালের পার্থক্য উনিশ-বিশ । তবে  পরিসংখ্যানের বিচারে পিছিয়ে রোনাল্ডোরা। ফ্রান্সের বিরুদ্ধে শেষ দশটা ম্যাচেই হারতে হয়েছে পর্তুগালকে। সেই উনিশশো পঁচাত্তর সালে ফরাসি ব্রিগেডের বিরুদ্ধে শেষ জয়ের স্বাদ পেয়েছিল পর্তুগাল। তারপর থেকে লেস ব্লুজদের বিরুদ্ধে সাফল্য পেতে ব্যর্থ ফিগোর দেশ।

এক নজরে শেষ পাচঁটি ম্যাচে দু-দেশের দ্বৈরথের পরিসংখ্যান

দু’হাজার সালে ইউরো কাপেই ফ্রান্সের কাছে এক-দুই গোলে হারতে হয়েছিল পর্তুগালকে। ২০০১ সালেও একই ফলাফল। প্রীতি ম্যাচে ফ্রান্সের কাছে শূন্য-চার গোলে লজ্জার হার হারতে হয়েছিল পর্তুগালকে। ২০০৬ সালে বিশ্বকাপে ফ্রান্সের কাছে শূন্য-এক গোলে হারতে হয়েছিল রোনাল্ডোর দেশকে। ২০১৪ এবং ২০১৫ সালে ফ্রান্সের কাছে প্রীতি ম্যাচে হেরে যায় পর্তুগাল।এবছর ইতিহাসের পাতায় নতুন পরিসংখ্যান লিখতে মরিয়া পর্তুগাল। দলের সেরা তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোও খেতাব জয়ের ব্যাপারে যথেষ্ট আশাবাদী। ২০০৪ সালে ইউরো কাপের ফাইনালে গ্রিসের কাছে হারতে হয়েছিল পর্তুগালকে। সেবছর জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছিল রোনাল্ডোর।

বারো বছর পর কি দেশকে খেতাব এনে দিয়ে অতীতের পরিসংখ্যান বদলাতে পারবেন রোনাল্ডো? অধীর অপেক্ষায় পর্তুগালবাসী। ফাইনাল খেলাটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১১ জুলাই রাত একটায়।