শিক্ষার্থীদের জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার ঘটনায় বিব্রত নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়

৪:২৯ পূর্বাহ্ন | শনিবার, জুলাই ৯, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক –শিক্ষার্থীদের জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার ঘটনায় বিব্রত নর্থ সাউথবিশ্ববিদ্যালয় গুলশান হত্যাকাণ্ডের পর শোলাকিয়ার জঙ্গি হামলায়ও নাম জড়িয়েছে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের।

north south

শোলাকিয়ায় নিহত জঙ্গি আবির রহমান নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ এর ফাইনাল ইয়ারের শিক্ষার্থী। একের পর এক শিক্ষার্থীর জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা বেরিয়ে আসার ঘটনায় বিব্রত নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়।

এর আগে গণজাগরণ মঞ্চের ব্লগার রাজীব হায়দার হত্যার ঘটনায় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ শিক্ষার্থীকে আটক করেছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়টির বিভিন্ন শিক্ষক-শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে নানা সময়ে জঙ্গিবাদে জড়ানোর অভিযোগ উঠেছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রমাণসাপেক্ষে বিভিন্ন সময় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বহিষ্কার করলেও থেমে থাকেনি জঙ্গিদের কার্যক্রম।

নর্থ সাউথে জঙ্গিদের ‘বিচরণের’ পুরনো সেই অভিযোগের সত্যতা মিলেছে গুলশান হামলার ঘটনায়ও। এ ঘটনায় নিহত জঙ্গি নিবরাস ইসলাম এ বিশ্ববিদ্যালয়েরই শিক্ষার্থী ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিবরাস ২০১১ সালের সামার সেমিস্টারে ভর্তি হয়েছিল, ২০১২ সালে ৩ সেমিস্টার পড়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে দেয় নিবরাস।

এছাড়াও গুলশান হামলার ঘটনায় আটক আরেক সন্দেহভাজন হাসনাত রেজাও বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক শিক্ষক ছিলেন।

এদিকে শোলাকিয়ার হামলায় নিহত জঙ্গি আবির রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএয়ের ফাইনাল ইয়ারের শিক্ষার্থী। একের একে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার ঘটনায় ফেসবুকে অনেকেই বিশ্ববিদ্যালয়টি বন্ধ করে দেওয়ার দাবি তুলেছেন। তাদের দাবি, বিশ্ববিদ্যালয়টি ‘জঙ্গি তৈরির কারখানায়’ পরিণত হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা বলতে যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখপাত্র ও জনসংযোগ দপ্তরের প্রধান বেলাল আহমেদ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, লোকজন তো এসব বলবেই। এরকম হতে থাকলে তো এটা বলাই স্বাভাবিক।

বারবার জঙ্গি সংশ্লিষ্টতায় বিশ্ববিদ্যালয়টির নাম ওঠে আসার বিষয়ে তিনি বলেন, কি বলবো, আমরা আসলেই বিব্রত।

প্রসঙ্গত, গুলশানের হলি আর্টিসানে শুক্রবার রাতে জঙ্গিরা হামলা চালিয়ে দেশি-বিদেশিদের জিম্মি করে। এসময় ২০ জনকে হত্যা করে তারা। এছাড়া জঙ্গিদের আক্রমণে মারা যান দুই পুলিশ কর্মকর্তাও। পুলিশ দাবি করেছে, এ ঘটনায় ৬ জঙ্গি নিহত হয়েছে।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার ঈদের জামায়াতের আগে শোলাকিয়ায় ঈদগাহের পাশে পুলিশের উপর সন্ত্রাসীরা আক্রমণ করে। এ ঘটনায় দুই পুলিশসহ ৩ জন মারা গেছেন। আর পুলিশের গুলিতে সন্ত্রাসী আবির রহমান মারা যান।