হৃতিক সাবেক স্ত্রী সুজান খানের বিরুদ্ধে এবার ১৫ কোটি টাকার মানহানি মামলা

৪:২৬ অপরাহ্ন | শনিবার, জুলাই ৯, ২০১৬ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক –

হৃতিক রোশনের সাবেক স্ত্রী সুজান খান কিছুদিন আগে প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত হয়েছেন। গোয়া পুলিশের মতে, সুজানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে, তিনি ১.৮৭ কোটি টাকা প্রতারণার সঙ্গে যুক্ত। এবার এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে মানহানির মামলা।

জানা গেছে, সুজান খানের বিরুদ্ধে ১৫ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেছেন একটি রিয়েল এস্টেট ফার্মের ম্যানেজিং পার্টনার।

এমগি প্রপার্টিজ-এর ম্যানেজিং পার্টনার মুদিত গুপ্তা গোয়ার সিভিল ডিভিশন কোর্টে মামলা রুজু করেছেন। তার অভিযোগ, সুজান তার বিরুদ্ধে অবমাননাকর মন্তব্য করেছেন। গুপ্তার আইনজীবী রনজিত শেঠি জানিয়েছেন, আগামী ২০ জুলাই এই মামলার শুনানি।

57673979

57673979

সম্প্রতি সুজানের বিরুদ্ধে ১.৮৭ কোটি টাকার প্রতারণার অভিযোগ তোলে এমগি প্রপার্টিস। পানাজি থানায় এফআইআর দায়ের করে তারা। তাদের দাবি, নিজেকে স্থপতি বলে দাবি করে সুজান তাদের কাছ থেকে একটি কন্ট্রাক্ট বাগিয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু সাংবাদিক বৈঠকে এই অভিযোগ অস্বীকার করেন সুজান। সেখানেই গুপ্তার বিরুদ্ধে সুজান অবমাননাকর মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ।

শেঠি জানিয়েছেন, ওই বৈঠকে সুজান বলেন, গুপ্তা তাকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করছেন। তিনি ‘সিঙ্গেল মাদার’ হওয়ায় গুপ্তা তার ওপর চাপ তৈরি করার চেষ্টা করছেন। সুজান আরও বলেন, ওই সংস্থা সস্তার কোনও আর্কিটেক্ট চেয়েছিল। সুজানের এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতেই মামলা রুজু করা হয়েছে।

নিউজ এজেন্সি থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী জানা গেছে, সুজান খান অনেকদিন ধরেই ইনটেরিয়র ডিজাইনিংয়ের ব্যবসা করছেন। সেই সূত্রেই একটি রিয়েল এস্টেট কোম্পানির সঙ্গে একটি প্রজেক্টে চুক্তিবদ্ধ হন। চুক্তি অনুযায়ী সেই প্রোজেক্টের কাজ যে সময় শেষ করার কথা ছিল, সেই সময় শেষ করতে না পারার জন্যই ওই কোম্পানির তার নামে প্রতারণার মামলা করে।

প্রসঙ্গত, গত ৯ জুন একটি রিয়েল এস্টেট সংস্থার অভিযোগের ভিত্তিতে সুজানের বিরুদ্ধে ১.৮৭ কোটি টাকা প্রতারণার মামলা দায়ের করে পানাজি পুলিশ। সুজান অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। এই অভিযোগে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাও জারি হয়েছিল।