বালিশ চাঁপা দিয়ে দুই মাসের শিশু পুত্রকে হত্যা করলো পাষন্ড পিতা


আলমগীর হোসেন, কালিয়াকৈর প্রতিনিধি- বালিশ চাঁপা দিয়ে আরাফাত হোসেন নামের দুই মাস ১০দিনের শিশু পুত্রকে খুন করেছে তার পাষন্ড পিতা। পরে এলাকাবাসি ঘাতক পিতাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সাকাশ্বর গ্রামে শনিবার দিবাগত রাতে। খবর পেয়ে পুলিশ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজইদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন এবং ঘাতক পিতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত ঘাতক জাহাঙ্গীর হোসেন (২৪) ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলার উজানপাড়া এলাকার ইসমাঈল হোসেন এর ছেলে এবং স্ত্রী-সন্তান নিয়ে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সাকাশ্বর এলাকার হবু উল্লাহর বাড়িতে ভাড়া থেকে অটোরিকশা চালাতো।

নিহতের মা খাদিজা বেগম জানায়, দুই বছর আগে জাহাঙ্গীরকে ভালবেসে বিয়ে করেন। বিয়ের পর কাজের উদ্দেশ্যে কালিয়কৈরে আসে। এরই মধ্যে তাদের ঘরে একটি শিশু পুত্র জন্ম গ্রহণ করে। নাম রাখা হয় আরাফাত হোসেন। কালিয়াকৈরের সাকাশ্বর এলাকায় আসার পর তার স্বামী জাহাঙ্গীর অটোরিকশা চালানো ধরে। এরই মধ্যে জাহাঙ্গীর ওই এলাকার এক মেয়ের সাথে অবৈধ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। বিষয়টি নিয়ে প্রায়ই তাদের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকতো।

শনিবার সকালে এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া বাধে। ঝগড়ার একপর্যায়ে তাকে বেধম মারপিট করে। পরে বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্যকে জানালে রাতে এনিয়ে শালিশ বৈঠক হয়। শালিশ বৈঠকে দু’জনকে মিলিয়ে দেয়া হয়। পরে রাতে সন্তান নিয়ে স্বামী-স্ত্রী একই ঘরে ঘুমায়। রাতের কোন এক সময় পাষন্ড জাহাঙ্গীর তার সন্তানকে বালিশ চাঁপা দিয়ে হত্যা করে।khunকালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ আতিকুর রহমান রাসেল বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জাহাঙ্গীর তার শিশু পুত্রকে বালিশ চাঁপা দিয়ে হত্যা করেছে বলে স্বীকার করেছে।

কালিয়াকৈর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল মোতালেব মিয়া জানান, শিশু পুত্রকে হত্যার অভিযোগে শিশুটির বাবাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় মামরার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

◷ ১১:৫৬ পূর্বাহ্ন ৷ সোমবার, জুলাই ১১, ২০১৬ অপরাধ, ঢাকা, দেশের খবর