বাবাকে কুপিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ প্রতিবেশি এক রিকশাচালকের বিরুদ্ধে

১০:৩৬ পূর্বাহ্ন | মঙ্গলবার, জুলাই ১২, ২০১৬ অপরাধ, আলোচিত, স্পট লাইট

ভোলা প্রতিনিধি :

ভোলার চরফ্যাশনে ‘প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান’ করায় গভীর রাতে দলবল সহ হামলা করে বাসা থেকে তুলে নিয়ে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ এক রিকশাচালক যুবকের বিরুদ্ধে।

মামলার অভিযোগমতে, ঘটনার দিন অভিযুক্ত রিকশাচালক বাড়িতে সিদকেটে ঢুকে মাদ্রাসাছাত্রীর বাবাকে কুপিয়ে জখম করে। এরপর ঐ ছাত্রীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে পাশের একটি নির্জন স্থানে দলবলসহ অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ করে।

ঘটনার শিকার ঐ ছাত্রীর জবানবন্দী এবং ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে রোববার চরফ্যাশন থানায় মামলা দায়ের করলে,  মিজান নামে এক যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর সোমবার (১১ জুলাই) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয় অভিযযুক্ত রিকশাচালক মিজানকে ।

মামলার বিবরণে বাদি অভিযোগ করেন, চরফ্যাশন পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের ইয়াছিন বাড়ির ছেলে রিকশা চালক মিজান তার মাদরাসায় পড়ুয়া মেয়েকে (১৫) প্রেমের প্রস্তাব দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় সে অজ্ঞাত ৩/৪ জন যুবককে নিয়ে গত ৩ জুলাই রাত ১টার সময় বাড়ির রান্না ঘরের টিন কেটে ঘরে ঢুকে।

raped-girl-news-sk

ওই সময় তিনি টের পেয়ে মিজানকে হাতে নাতে ধরে ফেললে তারা তাকে কুপিয়ে জখম করে এবং তার ছেলেকে বেঁধে রাখে। একপর্যায়ে মিজান তার মেয়েকে ঘরের পিছনের বাগানে নিয়ে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ করে ফেলে চলে যায় । যাবার সময় আসামিরা স্বর্ণালংকার ও মোবাইল সেটটি নিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশি ও স্বজনেরা মেয়েটিকে ও তার বাবা ও ভাইকে উদ্ধার করে চরফ্যাশন হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে, চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনামুল হক সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, বাদীর অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছি। ঘটনার শিকার ঐ মাদ্রাসাছাত্রীকেও প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ করে আদালতে পেশ করা হবে।