• আজ বুধবার, ৭ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করা ঠিক হয়নি


❏ শুক্রবার, জুলাই ১৫, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক –  জঙ্গি ইস্যুতে সম্প্রতি বাংলাদেশে প্রচারিত পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ এবং এরআগে ইসলামিক টেলিভিশনের সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়ায় সরকারের সমালোচনা করেছেন বিএনপির র্শীষ নেতারা। তারা বলেন, বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করা ঠিক হয়নি।

pease

এরফলে ধর্মপ্রাণ মানুষের অনুভুতিতে আঘাত করা হয়েছে। পাশাপাশি সরকারের এই সিদ্ধান্তের কারণে মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হবে বা হয়েছে। কিন্তু সাধারণ মানুষ ঐক্যবদ্ধ হতে না পারার কারণে এবং জাকির নায়েকের আলাদা কোন সংগঠন না থাকায় সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ প্রকাশ্যে দেখা যাচ্ছে না। তবে ধর্মপ্রাণ মানুষ সরকারের এই সিদ্ধান্তে ভেতরে ভেতরে ঘৃণা প্রকাশ করছে ঠিকই।

এপ্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, জাকির নায়েকের মালিকানাধীন টিভি চ্যানেল পিস টিভির সম্পচার বাংলাদেশে কোনও ধরণের যাচাই বাছাই ছাড়া নিষিদ্ধ করা সরকারের এই সিদ্ধান্ত সঠিক নয়। তিনি বলেন, পিস টেলিভিশনের মাধ্যেমে জাকির নায়েক যে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ বা উগ্রবাদ উস্কে দিয়ে উস্কানিমুলক কোনও বক্তব্য দিয়েছেন এটা আমার জানা নেই। তিনি যেসব কথা বলেছেন তা সবই কুরআন, বাইবেল, গীতা বেদসহ বিভিন্ন ধর্ম গ্রন্থের উদ্ধৃতি দিয়েছেন। তিনি মানুষকে ইসলামের দাওয়াত দিয়েছেন। আমি জানি না সরকার কি কারণে এটা করেছে। এই সিদ্ধান্তের কারণে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা কষ্ট পাবে এবং মানুষ ইসলাম ও বিভিন্ন ধর্ম সর্ম্পকে জানার যে সুযোগ ছিলো তা থেকে বঞ্চিত হবে। এটাকে দেশের মানুষ ভালো চোখে দেখবে না।

অপরদিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন. পিস টিভি বন্ধে ধর্মপ্রাণ মানুষ ক্ষুব্ধ হয়েছে এটা নিশ্চিত। কিন্তু এর বহি:প্রকাশ আমরা দেখবো না একারণে জাকির নায়েকের আলাদা কোনও সংগঠন নেই। তিনি কেবল ইসলাম র্ধমের কথা বলেছেন তা নয় তিনি সকল ধর্মে বিষয়ে গবেষণামূলক বক্তব্য তুলে ধরেছেন। তিনি টেলিভিশনের মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম নয় অন্য ধর্ম নিয়েও কথা বলছেন কিন্ত তার ওই বক্তব্যের মধ্যে জঙ্গিবাদ বা উগ্রবাদ নিয়ে কথা বলেন না। যেহেতু আলাদা কোনও সংগঠন নেই তাই পিস টিভি বন্ধের কারণে ধর্মপ্রাণ মানুষ সরকারের এই সিদ্ধান্তে ঘৃণা প্রকাশ করছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন