চুয়াডাঙ্গায় ফকিরের আস্তানায় দুর্বৃত্তদের হামলায় মহিলাসহ আহত- ৩, নিখোঁজ-১


মেহেদী হাসান, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: জীবননগর উপজেলার একতারপুর গ্রামে বাউল তরিকাপস্থী এক সাধু গুরুর আস্তানায় শনিবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়েছে। হামলায় সাধু ভক্ত (আশেকান) দুই মহিলা সহ ৩ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন- ঝিনাইদহ জেলার ভবানীপুর গ্রামের ফজলুর রহমানের স্ত্রী রশিদা বেগম (৬০), কুষ্টিয়া জেলার পোড়াদা গ্রামের আব্দুর রহিম (৬৫) ও তাঁর স্ত্রী বুলু বেগম (৫০)। আহতদেরকে প্রথমে জীবননগর হাসপাতালে এবং পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া আস্তানার সাধু ভক্ত বক্স মন্ডল নামে এক ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন।

chuadanga

আস্তানার সাধু গুরু (মালিক) মুকুল হোসেন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এলাকার বিভিন্ন গ্রাম থেকে সাধু ভক্তরা এসে অনুষ্ঠান শেষে ওই আস্তানায় ঘুমিয়ে ছিলেন। রাত আনুমানিক সাড়ে ১১ টার দিকে ১০/১২ জন দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আস্তানায় ঢুকে আস্তানায় থাকা সাধু ভক্তদের উপর এলোপাতাড়িভাবে কোপাতে থাকেন। এ সময় তাঁদের চিৎকারে গ্রামবাসীরা ছুটে এলে দৃর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে গ্রামবাসী মুমুর্র্ষূ অবস্থায় রশিদা বেগম (৬০), আব্দুর রহিম (৬৫) ও তাঁর স্ত্রী বুলু বেগমকে (৫০) উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করেন। আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় পরে তাঁদেরকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। এছাড়া এ ঘটনার পর থেকে আস্তানার অপর এক সাধুভক্ত কোটচাঁদপুর উপজেলার বলুহর গ্রামের বক্স মন্ডল (৫০) নিখোঁজ রয়েছেন।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মোঃ আনিছুর রহমান সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, আহত রশিদার গলায় ও মুখে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। এবং আব্দুর রহিম ও বুলু বেগমকে শরীরের বিভিন্ন যায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয়েছে এছাড়া বুলু বেগমের ডান পা ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে। সবারই অবস্থা আশঙ্কাজনক।

জীবননগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ হুমায়ুন কবির সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, আমার কাছে এখন পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। তবে ঘটনাটি লোকমুখে শোনার পর বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

◷ ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন ৷ রবিবার, জুলাই ১৭, ২০১৬ খুলনা, দেশের খবর