• আজ ২১শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ভাঙ্গনের মুখে আমতলীর গুরুত্বপূর্ন স্থাপনা ও ঘর-বাড়ী

৬:০৩ অপরাহ্ন | রবিবার, জুলাই ১৭, ২০১৬ দেশের খবর, বরিশাল

এম এ সাইদ খোকন, বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনার আমতলী উপজেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত পায়রা নদীর ভাঙ্গন ফের অগ্নিরূপ ধারন করেছে। গত ২০ দিনে চাওড়া ইউনিয়নের পশ্চিম ঘটখালী গ্রামের সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন, কমিউনিটি ক্লিনিক সহ ১৬/১৮ টি ঘর নদীতে বিলিন হয়ে গেছে। বর্তমানে কুয়েত দাতা সংস্থার নির্মানাধীন জামে মসজিদ সহ শতাধিক ঘর বাড়ী পায়রা নদী বক্ষে বিলিন হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে।

payra-nodi

যে কোন সময় ঘর-বাড়ী নদীতে বিলিন হয়ে যেতে পারে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৈরি আবহাওয়া ও নদী উত্তাল থাকায় গত ২০ দিন ধরে নদী ভাঙ্গনের প্রবনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। নদী ভেঙ্গে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন, কমিউনিটি ক্লিনিক সহ পশ্চিম ঘটখালী গ্রামের নজরুল ইসলাম, কাঞ্চন আকন, জহিরুল আকন, মিলন হাওলাদার, আবদুর রব, রাসেল ও লিটন হাওলাদারের ঘর-বাড়ী সহ ১৬/১৮ টি ঘর-বাড়ী নদী বক্ষে বিলিন হয়ে গেছে। এ ছাড়াও ওই এলাকার শতাধিক ঘর-বাড়ী নদীতে বিলিন হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে।

বিলিন হওয়া বিদ্যালয় ও কমিউিনিটি ক্লিনিকের কার্যক্রম কর্তৃপক্ষ অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছে। বিদ্যালয়ের ক্লাস চলছে পার্শ্ববর্তী আবাসন প্রকল্পের ঘরে এবং কমিউনিটি ক্লিনিকের কার্যক্রম চলছে চাওড়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে। এতে ওই এলাকার শিক্ষা ব্যবস্থা ও চিকিৎসা সেবায় ব্যহত হচ্ছে।

কুয়েত সরকার কর্তৃক নির্মিত মসজিদ ভাঙ্গার উপক্রম হওয়ায় মুসুল্লীরা মসজিদে আসা বন্ধ করে দিয়েছে। গ্রামের শতাধিক পরিবার ভাঙ্গন আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। নদী ভাঙ্গন রোধ না হলে শতাধীক পরিবারের পথে বসতে হবে। স্থানীয়দের অভিযোগ নদী ভাঙ্গনের বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও তারা কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

বরগুনা পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী এস এম শহিদুল ইসলাম সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, পায়রা ভাঙ্গন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রকল্প পাঠানো হয়েছে।

আমতলী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের দাবীতে মানববন্ধন

আজ রবিবার সকালে আমতলী উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স এর সম্মুখে আমতলী মফিজ উদ্দিন বালিকা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের দাবীতে বিদ্যালয়ের ছাত্রী, শিক্ষক, অভিভাবক ও আমতলী উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণের অংশ গ্রহণে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। মানববন্ধন কর্মসূচী শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করা হয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ আলম কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম মৃধা, বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক তাসলিমা পারভীন, দেলোয়ার হোসেন, শাহাবুদ্দিন খান, রেজাউল করিম, বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী প্রিয়ংকা রানী (প্রমুখ)।

মানববন্ধন শেষে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার মোঃ আমিনুল ইসলাম এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করা হয়। স্মারক লিপি পেশ করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ আলম কবির, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. এম এ কাদের মিয়া, সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল ইসলাম মৃধা, আরপাঙ্গাশিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এ কে এম নুরুল হক।