সাভারে এক ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় গৃহবধুর মৃত্যু, ওটিবয় আটক


❏ মঙ্গলবার, জুলাই ১৯, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

আনোয়ার হোসেন রানা, আশুলিয়া প্রতিনিধি: সাভারে এক বেসরকারী হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় মিতু আক্তার (৩৫) নামের এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় উত্তেজিত নিহতের স্বজনেরা হাসপাতালে ব্যাপক ভাঙচুর চালিয়েছে। গতকাল সোমবার রাত ৮টার দিকে সাভার পৌর এলাকার তারাপুর মহল্লায় মুক্তি ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সাভার মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং জনরোষাণলের শিকার ওটিবয় আবুল কালাম আজাদকে আটক করেছে পুলিশ।

atok

নিহত মিতু আক্তার ২ সন্তানের জননী এবং সাভারের বিরুলিয়া ইউনিয়নের কালিয়াকৈর এলাকার আসাদের স্ত্রী। নিহতের স্বামী আসাদ জানায়, মিতু আক্তার তার স্বামীর বাড়ি কালিয়াকৈর এলাকায় বসবাস করেন। তবে বেশ কয়েকদিন যাবৎ তার স্ত্রীর পেটে ব্যথা অনুভব করলে চিকিৎসক পেটে পাথর হয়েছে এবং অপারেশন করার পরামর্শ দেন। পরে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তার স্ত্রীকে গত শনিবার বিকেলে মুক্তি ক্লিনিকে ভর্তি করেন। এরপর সোমবার বিকেল ৫টার দিকে হাসপাতালের সার্জারী চিকিৎসক ডা: কাজী সোহেল তাকে অপারেশনের জন্য অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায়। তবে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়ার পর প্রায় তিন ঘন্টা পার হয়ে গেলেও ডাক্তার রোগীকে বাহিরে বের না করায় তাদের মধ্যে সন্দেহ হয়। এক পর্যায়ে মিতু আক্তারের পরিবারের লোকজন অপারেশন থিয়েটারের কক্ষে প্রবেশ করে ভেতরে তার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে উত্তেজিত হয়ে উঠে।

এ ঘটনার পর পরই ওই হাসপাতালের চিকিৎসক ও কর্তৃপক্ষের লোকজন হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়। এ সময় নিহতের স্বজনেরা উত্তেজিত হয়ে হাসপাতালে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। খবর পেয়ে সাভার মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম কামরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর ঘটনায় হাসপাতাল ভাঙচুরের খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। এ ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। তবে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান।

এ রিপোর্ট লেখার সময় জানা গেছে, ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে একটি প্রভাবশালী মহল। নিহতের পরিবারকে হুমকি দিয়ে মামলা না করার চাপ দিচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন