• আজ রবিবার, ৪ আশ্বিন, ১৪২৮ ৷ ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ৷

পরিবারের থানায় জিডি পাবনায় ৩ যুবক নিখোঁজ : জঙ্গি সম্পৃক্ততার বিষয়ে তদন্ত করছে পুলিশ


❏ মঙ্গলবার, জুলাই ১৯, ২০১৬ দেশের খবর, রাজশাহী

124578_125


পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনার আটঘরিয়া ও ঈশ্বরদী এলাকার ৩ যুবক দীর্ঘদিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের কোন সন্ধান পাচ্ছে না পরিবারের লোকজন। নিখোঁজ যুবকেরা হলেন, আটঘরিয়া থানার নাগদহ গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে লিখন (১৯), ঈশ্বরদী থানার পিয়ারখালী গ্রামের মনোয়ার হাসানের ছেলে সজীব শেখ (২৯) ও নজরুল ইসলামের ছেলে সুমন (২৫)। এই তিন যুবকের জঙ্গি সম্পৃক্ততা থাকার সন্দেহে তদন্ত করছে পুলিশ বলে জানা গেছে।

আটঘরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুক আহমেদ জানান, আটঘরিয়া থানার নাগদহ গ্রামের ফজলুল হকে ছেলে লিখন গত ২০১৬ সালের ২০ মে থেকে নিখোঁজ রয়েছে। গত ১১ জুলাই লিখনের বাবা ছেলে নিখোঁজের বিষয়ে আটঘরিয়া থানায় একটি জিডি করেন। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, তার ছেলে রাগারাগি করে বাড়ি থেকে চলে গেছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিমান কুমার দাস বলেন, পিয়ারখালী গ্রাম থেকে সজীব নামের এক যুবক ২০১৫ সালের ২৯ মার্চ এবং একই গ্রামের সুমন ২৭ ডিসেম্বর থেকে নিখোঁজ রয়েছে। সুমন তার বন্ধুর সাথে বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে আর ফিরে আসেনি। তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে নিখোঁজের বিষয়ে একটি জিডি করেছেন।

অপরদিকে জেলা পুলিশের নিখোঁজের তালিকাভুক্ত ৪ জনের মধ্যে বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার দড়িমালঞ্চি গ্রামের আমজাদ মোল্লার ছেলে রফিক মোল্লা বাড়ি ফিরে এসেছে। রফিক এলাকার একটি মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যায়। বিয়ের পর বাড়ি ফিরে এসেছে বলে জানিয়েছেন আমিনপুর থানার ওসি তাজুল হক। এ সব যুবকের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) সিদ্দিকুর রহমান জানান, নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে তেমন সন্দেহজনক কিছু পাওয়া না গেলেও আমরা অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, নিখোঁজরা গুম হতে পারে, মেয়ে ঘটিত ব্যাপারেও নিখোঁজ থাকতে পারে, আবার অপহরণও হতে পারে বা কোন জঙ্গি সংগঠনের কানেকশন থাকতে পারে-আমরা সব বিষয় মাথায় নিয়ে তদন্ত করছি।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন