সংবাদ শিরোনাম

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বরযাত্রীবাহী বাস ধানক্ষেতে, আহত ১৫রংপুরে ধর্ষণ মামলায় এএসআইসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিটসিরাজগঞ্জে পুত্রবধু ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর গ্রেফতারওবায়দুল কাদের সাহেব আমি রাজাকারের সন্তান নই: কাদের মির্জাসিলেটে সাংবাদিকতায় সফল নারী সুবর্ণা হামিদহিলিতে ৩ ভুয়া চিকিৎসকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কারাদন্ডমিনুসহ বিএনপির চার নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদনআত্মহত্যার ২ মাস পর ছড়ানো হলো স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও, অভিযুক্ত পলাতকচট্টগ্রাম কারাগার থেকে পালানো আসামি রুবেল নরসিংদীতে গ্রেপ্তারবাস থেকে নারীকে ছুড়ে ফেলা সেই চালক-হেলপার গ্রেফতার

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে যুবকের লাশ উদ্ধার

১২:২৫ অপরাহ্ন | বুধবার, জুলাই ২০, ২০১৬ খুলনা, দেশের খবর

kushtia news pic

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে হাসান চৌধুরী (২৩) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এলাকা সূত্রে জানাগেছে গতকাল মঙ্গলবার বেলা ৩ টার দিকে রক্তাক্ত অবস্থায় তার লাশ উপজেলার তারাগুনিয়া ডাক বাংলো চত্বরে পড়ে থাকতে দেয়া যায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। হাসান চৌধূরী উপজেলার সোনাইকুন্ডি পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবুল কাশেম চৌধূরীর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা ও স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় সাংসদ রেজাউল হক চৌধুরীর আত্বীয় হাসান চৌধূরীকে এলাকার লোকজন চুরির অভিযোগে মঙ্গলবার সকালে ধরে গণপিটুনি দিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে পুলিশে সোর্পাদ্দ করে। হাসানের অবস্থা খারাপ হওয়ায় সকাল ১০ টার দিকে দৌলতপুর থানা পুলিশ তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে। অবস্থা আংশকাজনক হওয়ায় জরুরী বিভাগের ডাক্তার তাকে ভর্তি না করে ফেরত পাঠায়। অবস্থা বেগতিক দেখে, নেশার জন্য এমন করছে ভেবে, পুলিশ তাকে একটি ভ্যানে করে হেরোইন সেবনের জন্য ছেড়ে দেয়। ভ্যান চালক তাকে সাবেক সংসদ আফাজ উদ্দীনের বাড়ীর পাশে হেরো পট্টিতে নিয়ে গেলে তার মৃত্যু হয় । পরে তার লাশ ভ্যান চালক তারাগুনিয়া ডাক বাংলো চত্বরে ফেলে পালিয়ে যায়, পথ চারীরা একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। তারাগুনিয়া বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, বেলা ৩ টার দিকে একটি ভ্যানে করে তাকে তারাগুনিয়া ডাক বাংলো চত্বরে ফেলে যায়। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার পায়ে ব্যান্ডেজ ছিল। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। সাংসদের ভাই মিন্টু চৌধুরী হাসান চৌধূরীকে পিটানোর কথা অস্বীকার করে বলেন, “স্থানীয়রা তাকে ধরে গণপিটুনি দিয়ে সকালে আমার বাড়ির সামনে নিয়ে আসলে আমি তাকে পুলিশে সোর্পোদ করি। আমি কোন ধরনের মারধর করিনি”।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিদুল ইসলাম শাহিন জানান, হাসান মাদক সেবন ও চুরি করতো। সকালে স্থানীয় লোকজন তাকে মারপিট করে পুলিশে দেয়। পরে দৌলতপুর হাসপাতালে প্রেরণ করলে ডাক্তাররা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্যত্র প্রেরন করতে বলে।

ওসি বলেন, হাসানের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ না থাকায় স্থানীয় ইউপি সদস্যের জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।