• আজ বৃহস্পতিবার, ১৪ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৯ জুলাই, ২০২১ ৷

শায়েস্তাগঞ্জ রেল জংশনে যাত্রী বাড়লেও বাড়ছে না টিকেট


❏ বুধবার, জুলাই ২০, ২০১৬ দেশের খবর, সিলেট

মঈনুল হাসান রতন, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: আসাম বেঙ্গল রেলওয়ে সেকশনের সিলেট বিভাগে পাঁচটি জংশন ছিল। এর মধ্যে অন্যতম ছিল শায়েস্তাগঞ্জ জংশন। বর্তমানে এ জংশনটি হবিগঞ্জ জেলার একমাত্র রেলওয়ে জংশন হিসেবে গুরুত্ব বহন করছে।

rail

প্রতিদিন এখান থেকে বিভিন্ন লোকাল ও আন্তঃ নগর ট্রেনযোগে প্রায় দুই হাজার থেকে আড়াই হাজার যাত্রী দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যাতায়াত করে থাকেন। ট্রেন ভ্রমণের পূর্বে টিকেট ক্রয় করতে হয়। এ সময় দেখা দেয় বিড়ম্বনা। এখানে টিকেট পাওয়া যেন সোনার হরিণ।

অনেকেই টিকেট না পেয়ে বাধ্য হয়ে স্ট্যান্ডিং টিকেট (দাঁড়ানো টিকেট) নিয়ে ভ্রমণ করতে হচ্ছে। আবার অনেক যাত্রী ভেতরে জায়গা না পেয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছাদে উঠে গন্তব্যে পৌঁছাচ্ছেন। এতে অনেক সময় যাত্রীরা দুর্ঘটনা ও পকেটমার আর ছিনতাইকারীর শিকার হচ্ছেন। এ অবস্থা দীর্ঘদিনের। এতে ট্রেন যাত্রীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সূত্র জানায়, এ জংশনে ঢাকাগামী উপবনের পূর্বে ছিল ৩১টি বর্তমানে ৬টি, পারাবতের ছিল ৯০টি বর্তমানে ৩৫টি, কালনীর ৯৫টি বর্তমানে ৪৫টি ও জয়ন্তিকার ৬০টি বর্তমানে ৪১টি এবং চট্টগ্রামগামী উদয়নের পূর্বে ছিল ৫২টি বর্তমানে ২৫টি ও পাহাড়িকার ৫৫টির স্থলে বর্তমানে ২০টি টিকেট রয়েছে। সব মিলিয়ে প্রতিদিন আন্তঃনগর ট্রেনের টিকেট সংখ্যা ১৭১টি। অথচ যাত্রী সংখ্যা দুই থেকে আড়াই হাজার। এ জন্য সবার পক্ষে ট্রেনের টিকেট পাওয়া দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

দিন দিন সংকট আরো ঘনিভূত হচ্ছে। বের হচ্ছে না সমাধানের উপায়। এর সত্যতা নিশ্চিত করে শায়োগঞ্জ রেলওয়ে জংশনের স্টেশন মাস্টার মোঃ মোয়াজ্জুল হক রেজা সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, আর কি করেই বা টিকেট পাবেন। যাত্রীর পরিমাণ হিসেবে ট্রেনের আসন সীমিত। এ সীমিতকে আরো সীমিত করা হয়েছে। যাত্রী বাড়লেও আসন সংখ্যা বাড়ছে না বলেই দিন দিন যাত্রী দুর্ভোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। যাইহোক আমরা যাত্রী সেবায় কাজ করছি।

তিনি বলেন- টিকেট বৃদ্ধির জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে বলা হলেও বৃদ্ধি করা হয়নি। তিনি আরও বলেন- ঈদ এলে যাত্রী চারগুণ বৃদ্ধি পায়। যাত্রী সামাল দিতে আমাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। তাই যাত্রীদের বসার আসন সহ জরুরী ভিত্তিতে টিকেট সংখ্যা বাড়ানো প্রয়োজন। তাহলে আমরা যাত্রীসেবায় আরও এগিয়ে যাব।

ট্রেনের নিয়মিত যাত্রী জালাল আহমেদ বলেন- যাত্রীদের কথা চিন্তা করে টিকেট বাড়ানো প্রয়োজন। তাই আর বিলম্ব না করে টিকেট বাড়াতে তিনি কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।

শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি মোঃ ইয়াছিনুল হক সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন- যাত্রীসেবার কথা মাথায় রেখে গত কয়েক মাসে অভিযান পরিচালনা করে বেশ কয়েকজন কালোবাজারিকে গ্রেফতার করেছি। এ জংশন কালোবাজারি মুক্ত রাখতে পুলিশের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

শায়েস্তাগঞ্জে চালকের হাত-পা বেঁধে টমটম ছিনতাই

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে চালকের হাত-পা বেঁধে টমটম ছিনতাই করা হয়েছে।  গতকাল রাত সাড়ে ৮টার দিকে শায়েস্তাগঞ্জ পুরানবাজার-কলিমনগর সড়কের আলাপুর নামকস্থানে এ ঘটনা ঘটে। টমটম চালক সুদিয়াখলা গ্রামের আঃ রউফের পুত্র সাকির মিয়া (১৬)।

স্থানীয় সূত্র জানায়, টমটম চালক সাকির মিয়া ড্রাইভার বাজার থেকে ৫-৬ জন যাত্রী নিয়ে পুরানবাজার হয়ে কলিমনগর যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে টমটমে থাকা যাত্রীবেশি ছিনতাইকারীরা কলিমনগর সড়কের আলাপুর নামকস্থানে চালককে হাত-পা বেঁধে রাস্তার নিচে ধান ক্ষেতে ফেলে দিয়ে টমটম নিয়ে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা চালক সাকির মিয়ার কান্না শুনে উদ্ধার তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়।  টমটম মালিক হারুন মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, এইমর্মে থানায় জিডি করা হয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন