ভ্রাম্যমান আদালতের পরিচালনায় পাঁচ জাল সনদ বিক্রিকারীর অর্থদন্ড


মাজহারুল ইসলাম লিটন, ডিমলা প্রতিনিধি: জাল জাতীয় পরিচয় পত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ বিক্রি করার অপরাধে নীলফামারীতে পাঁচ ব্যক্তির জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। আজ বুধবার দুপুরে নীলফামারী-সৈয়দপুর সড়কের সংগলশী উত্তরা ইপিজেড চত্তরে অভিযান চালিয়ে জাল পরিচয় ও সনদ পত্র জব্দ করে পুড়িয়ে ফেলা হয়। সে সময় প্রথম শ্রেনীর কর্মকর্তাদের নামের সিলও বানিয়ে কাগজপত্রে সত্যায়িত করার সত্যতা পায় আদালত।

ata-lote

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নীলফামারী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রে যোবায়ের হোসেন। অভিযানের সময় র‌্যাব-১৩ নীলফামারী সিপিসি-২র উপ-সহকারী পরিচালক প্রদীপ চন্দ্র সাহা উপস্থিত ছিলেন।

অভিযোগ ছিলো দীর্ঘদিন থেকে একটি চক্র কম্পিউটার মাধ্যমে জাল জাতীয় পরিচয় পত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ সহ বিভিন্ন স্কুলের প্রশংসা পত্র তৈরি করে ইপিজেডের বিভিন্ন ফ্যাক্টরীতে চাকুরী প্রত্যাশীদের কাছে বিক্রি করে আসছিলো। যার হাতে নাতে প্রমাণ পায় ভ্রাম্যমান আদালত।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট যোবায়ের হোসেন জানান, অভিযোগের বিষয়টি জানতে পেরে উত্তরা ইপিজেডের সামনে অভিযান পরিচালনা করা হয়। জাল সনদের পসার বসিয়ে থাকা ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলেও সত্যতা পাওয়া যায় পাঁচ জনের বিরুদ্ধে। তাদের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

সুত্র জানায়, ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমানের ৫ হাজার, ওবায়দুল ইসলামের ৫ হাজার, উমর ফারুকের ৫ হাজার, আলী আক্কাসের ৩ হাজার এবং এজাজ আহমেদের ২ হাজার টাকা জরিমান আদায় করে ভ্রাম্যমান আদালত।

◷ ৫:২২ অপরাহ্ন ৷ বুধবার, জুলাই ২০, ২০১৬ দেশের খবর, রংপুর