বিয়ের আগে যে খাবারগুলো খাবেন না


লাইফস্টাইল ডেস্ক: আমরা প্রতিদিনই অনেক ধরনের খাবার খেয়ে থাকি। যা খেতে ভাল লাগে, তাই খাই। কিন্তু আমাদের জীবনের অন্যান্য অংশের মত খাবার বিষয়েও নিয়ম করে খাওয়া একান্ত জরুরি। না হলে ভবিষ্যৎ জীবনে এর ফলাফল ভাল আসে না। বিয়ে আমাদের জীবনের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার একটি। এই সময় সকলেরই টেনসন, স্ট্রেস, উত্তেজনা বেশি থাকে। বিয়ের মাস তিনেক আগে থেকে সকলেই ডায়েট চার্ট মেনে চলেন, নিয়মিত শরীরচর্চাও করেন। এর মধ্যে অনেক খাবার স্বাস্থ্যকর হলেও বিয়ের আগের ১ সপ্তাহের টেনসন, স্ট্রেসের কথা মাথায় রেখে তা ডায়েট চার্টের বাইরে রাখার পরামর্শ দেন ডায়েটিশিয়ান ও মনোবিদরা। জেনে নিন বিয়ের আগের  যে খাবারগুলো খাবেন না।

bia

অ্যালকোহল:

এর মধ্যে সালফিউরিক গ্যাস থাকে। তাই মদ্যপানের পর দিন আপনার শরীর ভার লাগবে। হজমের গণ্ডগোলও হতে পারে। হ্যাঙ্গওভার থেকে মুড অফ হতে পারে যা এই সময়ের জন্য মোটেও ভাল ব্যাপার না। টেনসন কাটানোর জন্য খেলেও এতে স্ট্রেস বাড়বে। পার্টিতে খেতে চান তাহলে হালকা কোনও অ্যালকোহলের ককটেল খান।

কপি:

বাঁধাকপি, ফুলকপি ও ব্রকোলি জাতীয় সব্জির মধ্যে সেলুলোজের পরিমাণ খুব বেশি থাকে। যা হজমের সমস্যা করতে পারে। বরং শশা জাতীয় সব্জি এই সময় বেশি করে খান।

কফি:

এই সময় নিয়ম করে সময় মেনে ঘুমের খুব প্রয়োজন। স্ট্রেস কাটাতে তাই কফির ওপর নির্ভর করবেন না। এতে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে চেহারায় ক্লান্তির ছাপ পড়বে। বেশি কফি খেলে অ্যাসিডিটিও হতে পারে।

কার্বনেটেড ড্রিঙ্ক:

অনেকেই ভাবেন ডায়েট সফট ড্রিঙ্ক এই সময় খাওয়া যায়। কিন্তু বিয়ের আগে সকলেই ডায়েট চার্ট মেনে চলেন। সফট ড্রিঙ্কের মধ্য চিনির পরিমাণ বেশি থাকে। পেটের মধ্যেও বুদবুদ কাটে সফট ড্রিঙ্ক। ওজনও বাড়বে, স্বাস্থ্যেরও ক্ষতি হবে।

জাঙ্ক ফুড:

এই ব্যাপারে আর নতুন করে কিছু বলার নেই। এই সময় স্ট্রেস বেশি থাকে। পিজা, বার্গার, ফ্রেঞ্চ ফ্রাইজ মুড ভাল করবে ঠিকই কিন্তু হজমের সমস্যায় পড়বেন।

দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার:

মায়েরা মনে করেন বিয়ের আগে রোজ দুধ খাওয়া প্রয়োজন। এতে কমজোরি যেমন কাটবে তেমনই রংও ফর্সা হবে। কিন্তু ডায়েটিশিয়ানরা জানাচ্ছেন এই সময় অনেক রকম টেনসন থাকে। দুধ থেকে হজমে সমস্যা হতে পারে। অনেকের ক্ষেত্রে দুগ্ধজাত খাবারে ওজন বাড়ার প্রবণতাও দেখা যায়।

চিউইং গাম:

বিয়ের ছবিতে সেলফি আদর্শ সেলফি ফেস তৈরির জন্য অনেক ট্রেনারই চিউইং গাম খাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু যত চিউইং গাম খাবেন তত শরীরে হাওয়া ঢুকে পেট ফাঁপবে। তাই বিয়ের ১ সপ্তাহ আগে থেকে চিউইং গাম বন্ধ করুন।

ড্রাই ফ্রুট:

শুকনো ফল অবশ্যই অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর। ডায়েট চার্টে অবশ্যই রাখা উচিত। কিন্তু এর মধ্যে ফ্রুক্টোজ ও গ্লুকোজের পরিমাণ বেশি থাকে। বিয়ের ১ সপ্তাহ আগের টেনসনে ড্রাই ফ্রুট ওজন বাড়াতে পারে।

ব্ল্যাক কফি:

আপনি যদি অবিবাহিত হয়ে থাকেন আর ব্ল্যাক কফি খেতে খুব বেশি পছন্দ করে থাকেন তাহলে আজই এই দারুণ খাবারটি খাওয়া একেবারে বন্ধ করে দিন। কেননা এই ব্ল্যাক কফি অনবরত খেলে তা দাঁতে দাগ তৈরিতে সহায়তা করে। এছাড়া এই পানীয়টি মুখকে অনেক বেশি শুষ্কও করে তোলে। এতে বিয়ের দিন আপনাকে মোটেই ভালো দেখাবে না।

আচার:

অনেকেই আচার খেতে বেশ পছন্দ করেন। এই খাবারটি বিভিন্ন ধরনের অ্যাসিডিক উপাদান দিয়ে তৈরি করা হয়ে থাকে। এটি খেলে শরীরের বিভিন্ন ধরনের আভ্যন্তরীণ ক্ষতি সহ ত্বকেরও নানা সমস্যা তৈরি করে। তাই বিয়ের আগে সুন্দর দেখাতে চাইলে এই খাবারটি খাওয়া একেবারেই উচিৎ না।

টমেটো সস:

টমেটো সস আরেক ধরনের অ্যাসিডিক উপাদান যা দাঁতে দাগ তৈরিতে সহায়তা করে। এছাড়া এই খাবারটি শরীরের বিভিন্ন ধরনের রোগ তৈরিতেও সহায়তা করে, ত্বকে প্রভাব ফেলে। তাই বিয়ের আগে এই খাবারটি একেবারেই খাওয়া উচিৎ না।

সয়া সস:

সয়া সস দাঁতে কালো দাগ ফেলে। এটি সাদা দাঁতকে কালো করে তোলে। ফলে বিয়ের আগে একজনের দাঁতের এই কালচে ভাবে স্বাভাবিকভাবেও অন্যজনের আকর্ষণ কমিয়ে দেবে। তাই যথাসম্ভব বিয়ের আগে এই খাবারটি খাবেন না।

ব্লুবেরি:

যদিও ব্লুবেরি ফলটি অনেক বেশি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এবং পুষ্টিকর তবুও এই ফলটি বিয়ের আগে খাওয়া একেবারেই উচিৎ না। কেননা এটি দাঁতে খুব বাজে ধরনের দাগ তৈরি করে ফেলে যা একজনের আকর্ষণ নষ্ট করে ফেলে।

চা:

চা তে ট্যানিক অ্যাসিড থাকে যা খাওয়ার রুচি নষ্ট করে। ফলে স্বাস্থ্যের ক্ষতি করে ফেলে। এছাড়া এটি দাঁতেও কালো দাগ ফেলে। তাই বিয়ের আগে এই খাবারটিও একেবারেই খাওয়া উচিৎ না।

◷ ১২:১১ অপরাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, জুলাই ২১, ২০১৬ লাইফস্টাইল