• আজ বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২১ অক্টোবর, ২০২১ ৷

‘রাজনৈতিক প্রতিহিংসা এবং রাজনীতি থেকে দূরে রাখার উদ্দেশ্যেই তারেকের কারাদণ্ড’


❏ বৃহস্পতিবার, জুলাই ২১, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বরঃ রাজনৈতিক প্রতিহিংসা এবং রাজনীতি থেকে দূরে রাখার উদ্দেশ্যে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রায় দেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মির্জা ফখরুলের বরাত দিয়ে দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানিয়েছেন। একই সঙ্গে কারাদণ্ডের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে মির্জা ফখরুল তার মুক্তির দাবি জানান। বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রায় পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের চাপে তাকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

প্রসঙ্গত, অর্থ পাচারের দায়ে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দোষী সাব্যস্ত করে ৭ বছরের জেল ও ২০ কোটি টাকা জরিমানা করেছেন হাইকোর্ট। একই মামলায় নিম্ন আদালতে দেওয়া তারেক রহমানের বন্ধু গিয়াস উদ্দিন আল মামুনের ৭ বছরের কারাদণ্ড বহাল রেখেছেন আদালত। ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট থানায় ২০০৯ সালের ২৬ অক্টোবর দায়ের করা এ মামলায় তারেক-মামুনের বিচার শুরু হয় ২০১১ সালের ৬ জুলাই।

mirja fokrulএ মামলায় অভিযোগ করা হয়, টঙ্গীতে প্রস্তাবিত ৮০ মেগাওয়াট ক্ষমতার একটি বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কাজ নির্মাণ কনস্ট্রাকশনস নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে পাইয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ২০ কোটি ৪১ লাখ ২৫ হাজার টাকা ঘুষ নেন মামুন। ২০০৩ থেকে ২০০৭ সালের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন পন্থায় ২০ কোটি ৪১ লাখ ২৫ হাজার ৮৪৩ টাকা সিঙ্গাপুরের সিটি ব্যাংকে মামুনের অ্যাকাউন্টে পাচার করা হয়, যার মধ্যে ৩ কোটি ৭৮ লাখ টাকা তারেক খরচ করেন বলে অভিযোগপত্রে বলা হয়।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আমির হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। তবে নিম্ন আদালতের এই মামলায় ২০১৩ সালের ১৭ নভেম্বর তারেক রহমানকে বেকসুর খালাস দেন ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ মো. মোতাহার হোসেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন