• আজ সোমবার, ৯ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২৫ অক্টোবর, ২০২১ ৷

ঝিনাইদহে ৪৮ দিন ধরে কলেজ ছাত্রী নিখোঁজ : থানায় জিডি


❏ শনিবার, জুলাই ২৩, ২০১৬ খুলনা, দেশের খবর

আরাফাতুজ্জামান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বিদ্যাধরপুর গ্রামের জিনিয়া আক্তার জুই (১৮) নামে এক কলেজ ছাত্রী ৪৮ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। যশোর মহিলা কলেজের অনার্স ২য় বর্ষের ছাত্রী জুই বিদ্যাধরপুর গ্রামের আজিজুর রহমানের মেয়ে। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানায় বৃহস্পতিবার একটি জিডি করা হয়েছে, যার জিডি নং ৮৯৭। জিডির পর ঝিনাইদহ সদর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি দিয়ে মেয়েটির সন্ধান চাওয়া হয়েছে।

nikhoj-jui

জিডির তথ্য অনুসারে জানা গেছে, গত জুন মাসের ৫ তারিখে জিনিয়া আক্তার জুই ঝিনাইদহে তার এক বান্ধবির বাসায় আসার কথা বলে বাড়ি ছাড়ে। এরপর ৪৪ দিন পার হলেও মেয়ের কোন সন্ধান না পেয়ে বৃহস্পতিবার মেয়ের বাবা আজিজুর রহমান ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি জিডি করেন। মেয়ের মা আঙ্গুরা খাতুন জানান, জিডি করে আসার পর বৃহস্পতিবার বিকালে মেয়ে জুই তার খালা কোটচাঁদপুরের জালালপুর গ্রামের লিপি খাতুনের সাথে কথা বলে। খালার কাছে জুই বলেছে আগামী ৩০ জুলাই তার কলেজে পরীক্ষা রয়েছে। পরীক্ষা শেষে বাড়ি আসবে। তবে তার কথায় অসংলগ্নতা রয়েছে বলে মেয়ের মা দাবী করেন। নিখোঁজ হওয়ার ৩/৪ দিন আগে সর্বশেষ জুই তার বাবার সাথে কথা বলেছিলো। মেয়ের বাবা আজিজুর রহমান জানান, জুই বিভিন্ন স্থানে স্বজনদের কাছে ফোন করে কখনো গেড়ামারা আবার কখনো গেন্ডারিয়ায় আছে বলে দাবী করছে।

জুই তার খালার কাছে এমনও দাবী করেছে সে যেখানে আছে, ঢাকা থেকে ২০ টাকা ভাড়া লাগে। জুইয়ের মোবাইল ব্যবহার করে রফিক পরিচয়ে এক ছেলেও তাদের সাথে যোগাযোগ করছে বলে পরিবারটি দাবী করেন। সূত্র মতে কথিত রফিক সেনা বাহিনীতে চাকরী করে এমন পরিচয় দিয়ে প্রায় জুইকে উত্যক্ত করতো। কথিত ওই রফিকের কাছেই মেয়েটি থাকতে পারে বলে পরিবারের সন্দেহ। এদিকে জিনিয়া আক্তার জুই ভালবাসার টানে ঘর ছেড়েছে নাকি কেও অপহরণ করেছে এ সম্পর্কে নিশ্চিত নয় পুলিশ। মেয়ে নিখোঁজ থাকার কারণে বাবা আজিজুর রহমান ও মা আঙ্গুরা খাতুন শোকে পাথর হয়ে পড়েছেন।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানা এস আই সাইফুল ইসলাম সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, নিখোঁজ মেয়েটিকে উদ্ধারের জন্য পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে। বার্তা পাঠিয়ে পুলিশের বিভিন্ন বিভাগকে অবগত করানো হয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন