সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

গানের শুটিংয়ে নিরব-তমা, শেষ হচ্ছে ‘গেম রিটার্নস’র দৃশ্য ধারণ

৭:৩১ অপরাহ্ণ | রবিবার, জুলাই ২৪, ২০১৬ বিনোদন

রবিউল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর- একটি নয়, দুটি নয় বেশ কিছু রোমহর্ষক দৃশ্য। ফেব্রুয়ারির শুরু থেকে টানা ১ মাস শুটিং করে ‘গেম রিটার্নস’ টিম, এর পরেই নানা ব্যস্ততায় আটকে যায় ছবিটির শুটিং। ফের ১৮ এপ্রিল আবার শুরু হয় ছবিটির বাকি কাজ। সেদিন থেকে টানা কাজ করলেও থেকে যায় শুধু গানের শুটিং।13692563_951781208300346_4001144626537213109_nঅবশেষে সব ব্যস্ততা কাটিয়ে এবার গানের শুটিং এ ব্যস্ত সময় পার করছেন নিরব ও তমা মির্জা। জানা যায়, গানের শুটিং এর মধ্য দিয়েই শেষ হচ্ছে ‘গেম রিটার্নস’ সিনেমার দৃশ্য ধারণ।

আলিফুজ্জামান প্রযোজিত ও রয়েল খান পরিচালিত ‘গেম রিটার্নস’ ছবিতে নায়ক হিসেবে সিক্যুয়েলেও থাকছেন চিত্রনায়ক নিরব। তার বিপরীতে অভিনয় করছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা তমা মির্জা ও নবাগতা চিত্রনায়িকা লাবণ্য।

সময়ের কণ্ঠস্বরকে মুঠো ফোনে নিরব জানালেন, এতিমধ্যে কক্সবাজারের বিভিন্ন লোকেশনে দুটি গানের শুটিং শেষ হয়েছে এবার আরেকটির জন্য বান্দরবান যাচ্ছি।

ছবিটিতে কি কি গান থাকছে এমন প্রশ্নের জবাবে নিরব জানালেন, সোমেশ্বর অলির লেখা ‘কি করে ভালবাসবো বলে দে না তুই ভালবেসে তোকে ছুই, এবং ‘আমার এক চোখে তুই, আরেক চোখে তুই ছাড়া আর কেউ নাই। অন্যটি হচ্ছে জনি হকের লেখা মনের মঞ্জিল।

আব্দুল্লাহ জহির বাবুর কাহিনী ও সংলাপে ‘গেম রিটার্নস’ ছবির গানগুলোতে কন্ঠ দিয়েছেন আরফিন রুমি ও বেলাল খান।nirobএ প্রসঙ্গে চিত্রনায়িকা তমা মির্জা বলেন, কক্সবাজারে আসার পরে ছবিটির গানের শুটিং নিয়ে খুব ব্যস্ত সময় পার করছি। এর মধ্যে বৃষ্টি থাকাতে এক দিন বেশ কাজের সমস্যা হয়েছে। তা ছাড়া সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত শুটিং করছি। এক কথায় দুজনেরই অবস্থা খুবই খারাপ।

এদিকে আগেই বলা হয়েছিল নিরবের এই ছবিতে থাকবে চমক, থাকবে গ্যাংস্টার লাইফ স্টাইলের পূর্ণচিত্র। শুটিং বলছে তারচেয়েও বেশি হয়ে যেতে পারে পর্দায়। নিরব ‘গেম রিটার্নস’ এর জন্য বদলে ফেলেছেন। শরীরকে করেছেন পেশীবহুল। নিয়মিত জিম আর শরীর চর্চায় বদলে ফেলেছেন নিজেকে। শুটিং-এই দেখা গেছে দুর্ধর্ষ নিরবকে। বদলে যাওয়া নিরবকে নিয়ে ঢাকাই চলচ্চিত্রে ভালো একটা অ্যাকশন ছবির অপেক্ষা এখন করা যেতেই পারে।

নিরব আবারও জানালেন, গেম রিটার্নস নিয়ে আমার বেশকিছু প্রতিশ্রুতি ছিল। যারফলে তৈরি হয়েছে দর্শকদের, ভক্তদের প্রত্যাশা। এই প্রত্যশা পূরণে আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। যেকোনো ঝুঁকিপূর্ণ চিত্রায়নে স্টান্ট না নিয়ে নিজেই শুট করেছি। আমি আমার ভক্তদের প্রকৃত অ্যাকশন ছবি উপহার দিতে চাই।