‘জ্বালানি তেলের দাম কমালেও এর সুফল পায়নি জনগণ’


❏ সোমবার, জুলাই ২৫, ২০১৬ Breaking News, অর্থনীতি, জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর – পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, সরকার স্থানীয় বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কিছুটা কমালেও পরিবহন বা অন্য খাতে এর সুফল জনগণ তেমন পায়নি।

সোমবার বিকেলে জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে ফেনী-৩ আসনের সংসদ সদস্য রহিম উল্লাহর এক প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর পক্ষে এ জবাব দেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

মন্ত্রী জানান, ২০১১ সালে আন্তর্জাতিক বাজারে যে হারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছিল, দেশে জনগণের কথা বিবেচনা করে সরকার সে হারে স্থানীয় বাজারে দাম বাড়ায়নি। এই খাতে বিপিসি তথা সরকার প্রচুর পরিমাণে লোকসান/ ভর্তুকি দিয়েছে। ২০১১ সালে লিটারপ্রতি সর্বোচ্চ ৩২ দশমিক ২৪ টাকা (ডিজেলে) ভর্তুকি দেওয়া হয়েছিল। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার প্রভাব স্থানীয় বাজারে পড়েনি।

kamal

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমে গেলেও আমাদের স্থানীয় বাজারে তা বর্ধিত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে- এ বিষয়টি বাস্তবতার নিরিখে কিছুটা বিশ্লেষণ করে দেখতে হবে। বিগত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে (নভেম্বর, ২০১৪) হতে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমতে শুরু করে। ইতিপূর্বে জ্বালানি তেল খাতে সরকার বিপুল পরিমাণ ভর্তুকি সমন্বয় করার সুযোগ পেয়েছে। লোকসান পুরোপুরি সমন্বয় না করেও ২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল সরকার জ্বালানি তেলের দাম কমিয়েছে। বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজারদর উর্ধ্বমুখী রয়েছে।

পঞ্চানন বিশ্বাসের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, গ্যাসের যে চাহিদা অব্যাহত আছে, তাতে আগামী ১৩ বছর পর দেশে আর গ্যাস পাওয়া যাবে না। তাই প্রাকৃতিক গ্যাসের ওপর চাপ কমাতে এলপিজি গ্যাসের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন