🕓 সংবাদ শিরোনাম

ব্যতিক্রমি হরর থ্রিলার ওয়েব সিরিজ ‘মোনা’র গল্পে যত চমক!আ.লীগের অধীনে কোনো নির্বাচনে যাবে না বিএনপি: ফখরুলসিনহা হত্যা মামলা: ৬ষ্ঠ দফায় টানা ৩ দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ কাল শুরুচুল কর্তন: দাবি না মানলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার হুমকিবাংলাদেশকে কেউ আর পিছিয়ে রাখতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রীস্বপ্নের পায়রা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রীপীরগঞ্জে হিন্দু পল্লিতে হামলা: ‘মূলহোতা’ সৈকতকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কারবিয়েতে গড়িমসি, অন্তরঙ্গ মুহূর্তে প্রেমিকের জিহ্বা কেটে দিলেন প্রেমিকা২৫ বছর পর ভোট হবে রাজশাহীর বানেশ্বরেশারজায় আজ লংকানদের হারানোর মিশনে নামবে বাংলাদেশ

  • আজ রবিবার, ৮ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ২৪ অক্টোবর, ২০২১ ৷

৩৫০ সংসদ সদস্যদের মধ্যে শুধু একজন সাধু তিনি তথ্যমন্ত্রী


❏ মঙ্গলবার, জুলাই ২৬, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক –  মাননীয় স্পিকার আসলে কি বলবো সাড়ে ৩০০ সংসদ সদস্য মনে হয় যে, আমরা সবাই চোর হয়ে গেছি। এই ৩৫০ জন সংসদ সদস্যদের মধ্যে শুধু একজন সাধু আছেন এবং তিনি হচ্ছেন মাননীয় তথ্যমন্ত্রী। সংসদে এই কথা  বললেন জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশিদ ।

sadhu

  টিআর-কাবিখা নিয়ে এমপিদের জড়িয়ে বক্তব্য দিয়ে ব্যাপক ক্ষোভের মুখে পড়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। তার বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়ে ও ক্ষোভ প্রকাশ করে এমপিরা মন্ত্রীকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে বলেছেন। একই সঙ্গে এমপিরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন সাড়ে তিনশ’ এমপির মধ্যে একজন শুধু সাধু, তিনি হলেন তথ্যমন্ত্রী।

সোমবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে তীব্র নিন্দা জানান সাবেক চিফ হুইপ আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ। এছাড়া আলোচনা করেন জাতীয় পার্টির প্রেসডিয়াম সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ ও স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মো. রুস্তম আলী ফরাজী

আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ বলেন, আজকে একটি পত্রিকায় তথ্যমন্ত্রী বলেছেন-টিআর কাবিখার অর্ধেক এমপিদের পকেটে যায়। তিনি আরও বলেছেন ভিক্ষুকদের নিয়ে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব না। মাননীয় স্পিকার আপনি একজন সংসদ সদস্য, প্রধানমন্ত্রী সংসদ সদস্য, বিরোধী দলীয় নেতা সংসদ সদস্য, আমরা ৩৫০ জন সংসদ সদস্য। এই সংসদ সদস্যদের সম্পর্কে তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানাই। তথ্যমন্ত্রীকে এই বক্তব্যের জন্য সংসদ সদস্যদের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত। একই সঙ্গে তথ্যমন্ত্রীর এলাকায় টিআর কাবিখার কী কী কাজ হয়েছে, তার তদন্ত হওয়া উচিত।

স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মো. রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, প্রত্যেক মানুষ যখন দায়িত্বপূর্ণ পদে যায় তখন তাকে দায়িত্ব নিয়ে কথা বলতে হয়। তিনি কোন তথ্যের ভিত্তিতে এ কথা বললেন। তাকে সেটা ব্যাখ্যা দিতে হবে। তিনি সবাইকে খারাপ বলতে পারেন না।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন