গাজীপুরে বোমা হামলায় ৬ জেএমবির ফাঁসি বহাল

১২:২৪ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৮, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর- গাজীপুর আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ে এক যুগ আগে জঙ্গিদের বোমা হামলার ঘটনায় জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) ১০ সদস্যের মধ্যে ৬ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এ মামলায় দু’জনের যাবজ্জীবন ও অপর দু’জনকে মামলা থেকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।haicortআজ বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- এনায়েত উল্লাহ ওরফে ওয়ালিদ ওরফে জুয়েল, আরিফুর রহমান ওরফে আকাশ ওরফে হাসিব, সাইদুর মুন্সী ওরফে শহীদুল মুন্সী ওরফে ইমন ওরফে পলাশ, আবদুল্লাহ আল সোহাইন ওরফে যায়িদ ওরফে আকাশ, নিজাম উদ্দিন রেজা ওরফে রনি ওরফে কচি ও তৈয়বুর রহমান ওরফে হাসান।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত দু’জন হলেন- মসিদুল ইসলাম মাসুদ ওরফে ভুট্টো ও আদনান সামী ওরফে আম্মার ওরফে জাহাঙ্গীর। আর বেকসুর খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- মো. আশরাফুল ইসলাম ওরফে আরসাদ ওরফে আব্বাস খান ও মো. সফিউল্লাহ ওরফে তারেক ওরফে আবুল কালাম।

জেএমবির এই ১০ সদস্যই বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

২০০৫ সালের এই বোমা হামলার আট বছর পর ২০১৩ সালে ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল বিচারিক আদালত। পরে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে দণ্ডপ্রাপ্তরা।

রাষ্ট্রপক্ষ জানায়, ২০০৫ সালের ২৯ নভেম্বর গাজীপুর আদালত এলাকায় বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। এতে আইনজীবীসহ আটজন নিহত হন। প্রাণ হারান আত্মঘাতী হামলাকারী আসাদ ওরফে জিয়াও।

গত ২১ জুলাই এ মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানি শেষে ২৮ জুলাই রায়ের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়। এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ একেএম মনিরুজ্জামান কবির, আসামিপক্ষে শুনানি করেন হেলাল উদ্দিন মোল্লা।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, আইনজীবীদের পোশাক পরে ২০০৫ সালের ২৯ নভেম্বর গাজীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির দুই নম্বর হলে ঢুকে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গি সংগঠন জেএমবির আত্মঘাতী সদস্য আসাদ ওরফে জিয়া ওরফে নাজির ওরফে নাহিদ। এতে হামলাকারী জেএমবি সদস্যসহ আইনজীবী আমজাদ হোসেন, গোলাম ফারুক, নূরুল হুদা, আনোয়ারুল আজিম, বিচারপ্রার্থী আব্দুর রব, বছির উদ্দিন, মর্জিনা আক্তার ও শামছুল হক ঘটনাস্থলেই নিহত হন। ওই দিনই পুলিশ বাদী হয়ে গাজীপুরের জয়দেবপুর থানায় বোমা ও হত্যা মামলা দায়ের করে।