খালেদার দুর্নীতি মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণ ৪ আগস্ট


❏ বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৮, ২০১৬ Breaking News, জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর- জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়াসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ৪ আগস্ট দিন ধার্য করেছেন আদালত। Khaleda-courtবৃহস্পতিবার ঢাকার বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদার এ দিন ধার্য করেন। চারজন সাক্ষীকে আসামিপক্ষের জেরা শেষে এ দিন ধার্য করেছেন আদালত।

এদিন মামলার সাক্ষী সাবেক যুগ্ম সচিব সৈয়দ জগনুল পাশা, সোনালী ব্যাংক গুলশান নিউ নর্থ শাখার প্রধান অফিসার মফিজ উদ্দিন ও ফেনী ছাগলনাইয়া অফিসের সাব রেজিস্ট্রার ফারুককে জেরা করেন খালেদা জিয়া এবং অন্য আসামির আইনজীবীরা।

তাদের জেরা শেষে বগুড়া গাবতলী অফিসের সাব-রেজিস্ট্রার আব্দুল জলিল সাক্ষ্য প্রদান করেন। তার সাক্ষ্য শেষে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাকে জেরা করেন। তাদের সাক্ষ্য ও জেরা শেষে আদালত মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ৪ আগস্ট দিন ধার্য করেন।

এ নিয়ে মামলায় ৩৬ সাক্ষীর মধ্যে ১৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা সম্পন্ন হয়েছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াসহ আসামি মোট ছয়জন। অন্য পাঁচ আসামি হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদার বড় ছেলে তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

আসামিদের মধ্যে ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক। বাকিরা জামিনে আছেন। তারা আদালতে হাজির ছিলেন এবং তারেক রহমানের পক্ষে তার আইনজীবী হাজিরা দাখিল করেন।

অন্যদিকে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় মোট আসামি চারজন। অপর তিন আসামি হলেন- খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছ চৌধুরীর তৎকালীন একান্ত সচিব বর্তমানে বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

জামিনে থাকা জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খান আদালতে উপস্থিত ছিলেন। হারিছ চৌধুরী মামলার শুরু থেকেই পলাতক।

মামলাটিতে ৩৪২ ধারায় খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন ধার্য রয়েছে আগামী ১১ আগস্ট। জামিনে থাকা অন্য দুই আসামি আত্মপক্ষ সমর্থন করে আদালতে লিখিত বক্তব্য জমা দিয়েছেন। মামলাটিতে সাক্ষ্য দিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও বাদী দুদকের উপ-পরিচালক হারুন-অর রশিদসহ মোট ৩২ জন সাক্ষী।

২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।

অন্যদিকে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা দায়ের করা হয়। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।

২০১৪ সালের ১৯ মার্চ দুই মামলায় খালেদা জিয়াসহ অপর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেন ঢাকা তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের আগের বিচারক বাসুদেব রায়।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন