সংবাদ শিরোনাম
আগামীকাল পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী | এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে পাঠানোর সিদ্ধান্তে সরকার অটল: পররাষ্ট্রমন্ত্রী | ‘হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর শিক্ষা সমগ্র মানব জাতির জন্য অনুসরণীয়’- রাষ্ট্রপতি | দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও মঙ্গল কামনা প্রধানমন্ত্রীর | ভুল স্বীকার করে সেই নোটিশ প্রত্যাহার জনস্বাস্থ্য পরিচালকের | ‘জাতি বিনির্মাণে মানুষের মনন তৈরিতে গণমাধ্যম অনন্য’- তথ্যমন্ত্রী | শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ বাসস্থানে থাকার নির্দেশ | রংপুরে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: এএসআইয়ের রিমান্ড আবেদনের শুনানি ৪ নভেম্বর | সিরাজগঞ্জে খাস জমিতে রাস্তা বন্ধ করে ঘর নির্মাণ করার অভিযোগ | পর্দার নির্দেশনা দেয়া জনস্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের পরিচালককে শোকজ |
  • আজ ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

স্বর্ণ বাবা ! কেজি কেজি স্বর্ণ পরে ঘুরে বেড়ান যে বাবা

১২:২৬ পূর্বাহ্ন | শনিবার, জুলাই ৩০, ২০১৬ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক –  সব সময়ই চক চকে উজ্জ্বল তিনি। কারণ কেজি কেজি স্বর্ণ পরে ঘুরে বেরান। তাই তার নাম স্বর্ণ বাবা। প্রতি বছর কনওর যাত্রার সময় ভারতের এই স্বর্ণ বাবাকে দেখার জন্য ভিড় উপচে পড়ে। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি। এ বছর তিনি ১২ কেজি সোনার গয়না পরে গাড়ির ছাদে চেপে দর্শকদের হাত নাড়তে নাড়তে জাতীয় সড়ক দিয়ে এগিয়ে গেছেন।

sornno-baba

আংটি, ব্রেসলেট, সোনার চেন, লকেট প্রভৃতি মিলিয়ে প্রায় ১২ কেজি সোনার গয়না পরে ছিলেন তিনি। যার বাজার মূল্য চার কোটি রুপির ওপরে। গত বছর হরিদ্বার থেকে দিল্লিতে নিজের আশ্রমে আসার সময় ৭২ লাখ রুপি টাকা খরচ করেছিলেন। এ বছর সেই বাজেট বেড়ে এক কোটি করেছেন তিনি। আর শুধু সাধারণ মানুষ কেন, পুলিশ অফিসাররা পর্যন্ত তার সাথে ছবি তোলার জন্য হুড়োহুড়ি জুড়ে দেন।

এত এত স্বর্ণ তিনি কেন পরেন? বলেন, ‘নিজের ধন-সম্পদ দেখানোর জন্য তিনি এত স্বর্ণ পরেন না, স্বর্ণ দেবী লক্ষ্মীর চিহ্ন বলেই তিনি পরেন।’ স্বর্ণ বাবা বলেন, ‘এ বছর আমার ২৪তম কনওর যাত্রা। যত দিন বেঁচে থাকব তত বছর এই যাত্রা করব।’ তিনি যখনই যাত্রা করেন প্রায় দুই শ’ ভক্ত তার সাথে থাকেন। আর থাকে তার নিজস্ব প্যান্ট্রি কার। পছন্দসই রান্না করে খাওয়ানোর জন্য রাঁধুনি। এত স্বর্ণ পরে থাকেন বলে নিজস্ব বডিগার্ডও থাকে। এ ছাড়া যে সব এলাকা দিয়ে তিনি যান আগে থেকেই সে সব এলাকার থানায় খবর দেয়া থাকে। থানার পক্ষ থেকেই করা হয় বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা।   নিজের একটি বিলাসবহুল ফর্চুনার গাড়ি তো রেয়েইছে, তার সাথে বেশ কয়েকটি গাড়ি থাকে তার কনভয়ে। থাকে বিশেষ টেন্ট যা যেকোনো প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে ব্যবহার করা যায়। আগে তিনি এক বড় পোশাক ব্যবসলায়ী ছিলেন। ব্যবসা থেকেই প্রচুর টাকা রোজগার করেন। তবে এখন তার প্রচুর ভক্ত রয়েছে। তাদের দেয়া দান থেকেই প্রত্যেক বছর গয়না বানান তিনি। যদিও তিনি বলেন, ‘সব উপরওয়ালা জুটিয়ে দেন।’

france ফ্রান্সের পাশে দাঁড়াল যুক্তরাজ্য

বুধবার, অক্টোবর ২৮, ২০২০