🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ শুক্রবার, ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ২ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

জানেন কি ক্যালকুলেটরের সংখ্যার ধারা উল্টো কেন!


❏ রবিবার, আগস্ট ৭, ২০১৬ জানা-অজানা

ক্যালকুলেটর

নিশীতা মিতু, লাইফস্টাইল ফিচার এডিটর, সময়ের কণ্ঠস্বর। ছোট্ট একটা হিসেবের কাজে ক্যালকুলেটর হাতে নিয়েছিলাম। হিসেব শেষে ক্যালকুলেটর হাতে নিয়েই ভাবতে লাগলাম, আচ্ছা ক্যালকুলেটরের সংখ্যাগুলো উল্টোভাবে লেখা কেন? এটা কি নেহাত এমনিই নাকি অন্য কোন কারন আছে?

আপনার মাথায়ও হয়ত আমার মত এই প্রশ্ন কোন এক সময় এসেছিলো। কেবল ক্যালকুলেটর নয়, আগের ফোনগুলোতেও সংখ্যার অবস্থান উল্টোদিকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক, আসলে কেন এভাবে থাকে সংখ্যাগুলো।

বলা হয়ে থাকে, সেই বাটনই নিচের দিকে রাখা উচিত যে বাটন সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। সর্বপ্রথম যখন ক্যামকুলেটরের ডিজাইন করা হয় তখন শূন্য (০) বাটনটিকে সবার নিচে রাখা হয়। ডিজাইনরা অনেক ভেবে দেখেন এই সংখ্যাটি সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করা হয় এবং, নিচের দিকে এই শূন্য বাটনটি থাকলে তা সহজেই ব্যবহারকারী ব্যবহার করতে পারবেন।

শূন্য বাটনের উপরে ক্রমান্বয়ে সাজানো থাকে ১-২-৩ এর উপর ৪-৫-৬ এবং সবচেয়ে উপরে ৭-৮-৯। সংখ্যাগুলো দূরত্ব এমনভাবে রাখা হয় যেন সহজেই তা হাতের নাগালে পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে যখন ইলেকট্রিক ক্যালকুলেটর এর ডিজাইন করা হয় তখন শূন্য (০) বাটনের পাশে (০০) এই বাটনও যুক্ত করা হয়। তারউপর বাপ পাশ থেকে ১ দিয়ে শুরু করে সবচেয়ে উপরের ডানে ৯ দিয়ে শেষ করা হয়।

বাটনযুক্ত ফোন এর পুর্বে গোলাকার নাম্বার সিরিয়ালের ডায়াল প্যাড ব্যবহার করা হত ফোনে। এখেত্রেও দেখা যায় ১-৯ সংখ্যাগুলোকে উল্টদিকে করে সাজানো এবং সবশেষে শূন্য (০)।

ফোন

পরবর্তীতে যখন টাচ টোন মোবাইল বানানো হয় তখন ডিজাইনাররা এই প্রথা থেকে বেরিয়ে আসার কথা ভাবেন। বেশ অনেকগুলো ছোট বড় পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর তারা ৩:৩ অনুপাতের ম্যাট্রিক্স ডিজাইন করেন যেখানে ১-২-৩ এর অবস্থান সবার উপরে এবং ৭-৮-৯ এর অবস্থান নীচে। আর শুন্যের (০) দুইপাশে স্টার(*) এবং হ্যাশের (#) অবস্থান। দেখা যায়, এটি সবচেয়ে কম ত্রুটি সম্পন্ন ডিজাইন।

স্মার্টফোন

এরপর থেকে এই ডিজাইনই সাধারণত সব মোবাইলে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এমনকি স্মার্টফোনেও এই ডিজাইন স্থায়ী রয়েছে।

মোটকথা হল সহজেই যেন ব্যবহার করা যায় সে কথা চিন্তা করে ব্যবহারের উপর নির্ভর করেই সংখ্যাগুলো এভাবে উল্টো করে সাজানো হয়েছিলো। এই যেমন আমাদের কম্পিউটার বা ল্যাপটপের কিবোর্ডের স্পেস বাটন থাকে সবার মাঝে। কেননা এই বাটনটিই আমরা সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করে থাকি।