• আজ মঙ্গলবার, ৪ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ১৮ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

পদবঞ্চিতদের জন্য কিছু করার নেই- মির্জা ফখরুল


❏ সোমবার, আগস্ট ৮, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্কঃ- alamgirবিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন,  কমিটি ঘোষণা হয়ে গেছে। তাই আপাতত পদবঞ্চিতদের জন্য আর কিছুই করার নেই। তবে উপ-কমিটিতে অনেক যোগ্য লোকদের স্থান দেয়া হবে, তারা সেখানে আসবেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি যদি মনে করি আমি বঞ্চিত হয়েছি। আমার উচিৎ হবে পরবর্তী কাউন্সিলের জন্য অপেক্ষা করা। কারণ কাউন্সিলরা ম্যাডামকে ক্ষমতা দিয়েছিলেন। সেই ক্ষমতাবলেই বেগম খালেদা জিয়া কমিটি করেছেন। পদ বঞ্চিতদের নিয়ে জানতে চাইলে এমন জবাব দেন বিএনপির মহাসচিব।

বিএনপির কমিটি নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের সমালোচনার বিষয়ে তিনি বলেন, রাজনৈতিক দলের কমিটি তার নিজস্ব ব্যাপার। এখানে স্বাভাবিকভাবে অন্য দলগুলোর যে প্রতিক্রিয়া, অন্য ব্যক্তির যে প্রতিক্রিয়া সেটাও থাকতে পারে। একটা ডেমোক্রেটিক সোসাইটিতে এটা হওয়াটাই স্বাভাবিক। কিন্তু রাজনৈতিক শিষ্টাচার বলে একটা কথা আছে। শালীনতা বলে একটা কথা আছে। সেই শালীনতাকে বর্জন করে, শালীনতাকে বাদ দিয়ে, আমরা কিছু কিছু মন্তব্য শুনতে পাচ্ছি, যেটা অনভিপ্রেত বলে আমরা মনে করি। এগুলো বিএনপিকে হেয় করার জন্য অপপ্রচার।

তিনি বলেন, অতীতেও যেভাবে ক্রাইসিসগুলো ওভারকাম করেছি এবারও কার্যকরী কমিটির মাধ্যমে ক্রাইসিসগুলো ওভারকাম করবো। আমাদের লক্ষ্য পুনরুদ্ধার করতে পারবো।

উল্লেখ্য, শনিবার দুপুরে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে বিএনপি। কমিটিতে অনেক যোগ্য নেতা তাদের প্রাপ্য পদ পাননি- কমিটি ঘোষণার পর এমন অভিযোগ তুলছেন অনেকে।

কাউন্সিলরদের দেয়া ক্ষমতাবলেই বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কমিটি গঠন করেছেন উল্লেখ করে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ঘোষিত কমিটিতে যারা পদবঞ্চিত হয়েছেন বা কাঙ্ক্ষিত পদ পাননি তারা বিক্ষোভ করলেও কোনো লাভ হবে না।

সোমবার দুপুরে নয়াপল্টনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

পদবঞ্চিত বা কাঙ্ক্ষিত পদ যারা পাননি তাদের উদ্দেশ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিক্ষোভ করে লাভ হবে না। ধৈর্য তো ধরতেই হবে। শেষ কথা বলতে তো কিছু নেই। সবসময় পরবর্তী একটা বিষয় থাকে। রাজনৈতিক দলগুলোতে পদের জন্য প্রতিযোগিতা সব সময় থাকে। সব রাজনৈতিক দলে আছে। পৃথিবীর সব দেশেই আছে।