• আজ সোমবার, ৩ মাঘ, ১৪২৮ ৷ ১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ৷

সিলেটের বরখাস্ত মেয়র আরিফুলকে কেন জামিন নয়: হাইকোর্ট


❏ মঙ্গলবার, আগস্ট ৯, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর- বরখাস্ত সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীকে কেন জামিন দেয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়ার বেঞ্চ তার জামিন শুনানি নিয়ে এ রুল দেন।arif_21622_1470730874বর্তমানে আরিফুল হক চৌধুরী সাবেক অর্থমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যা মামলায় কারাগারে রয়েছেন। আদালত রুলের জবাব দিতে রাষ্ট্রপক্ষকে ১০ দিনের সময় দিয়েছে।

শুনানিতে আরিফুল হকের পক্ষে ছিলেন- আইনজীবী মইনুল হোসেন ও আবদুল হালিম কাফি। আর রাষ্ট্রপক্ষের ছিলেন- ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. বশির উল্লাহ।

ঘটনার বিবরণীতে জানা যায়, ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদরের বৈদ্যেরবাজারে ঈদ-পরবর্তী এক জনসভা শেষে বের হওয়ার পথে গ্রেনেড হামলার শিকার হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া। সে হামলায় গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় তাঁর।

এ মামলার প্রথম দফায় দেওয়া অভিযোগপত্রে আরিফুলের নাম ছিল না। তবে সংশোধিত সম্পূরক অভিযোগপত্রে মেয়র আরিফুলের নাম আসে। সেই সংশোধিত সম্পূরক অভিযোগপত্র দাখিলের পর ২০১৪ সালের ২১ ডিসেম্বর মেয়র আরিফুলসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

পরে ওই বছরের ৩০ ডিসেম্বর আরিফুল বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত তা নাকচ করে দিলে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আরিফুল হক সিলেট মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটিরও সদস্য। সর্বশেষ ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমেদ কামরানকে হারিয়ে তিনি সিলেটের মেয়র নির্বাচিত হন। তবে কারাগারে আটক থাকা অবস্থায় ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে তাঁকে মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।