• আজ মঙ্গলবার, ২১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৬ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

চাঞ্চল্যকর হিমু হত্যা মামলার রায় রোববার


❏ বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১১, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ

রবিউল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর- চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর হিমাদ্রি মজুমদার হিমু হত্যা মামলার রায় ঘোষণার সময় নির্ধারণ করেছেন আদালত। দুই দফা পেছানোর পর রোববার (১৪ আগস্ট) এ মামলার রায় দেয়া হবে বলে আদালত সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার চতুর্থ অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ মো. নুরুল ইসলাম রায় ঘোষণার নতুন এই দিন ধার্য করেন।timthumb.phpএর আগে ২৮ জুলাই রায় ঘোষণার কথা থাকলেও বিচারক ছুটিতে থাকায় তা পিছিয়ে ১১ আগস্ট রায় ঘোষণার সময় নির্ধারণ করেন আদালত। তবে আজ ‘ফুল কোর্ট রেফারেন্স’ থাকায় আদালত রায় ঘোষণার নতুন তারিখ নির্ধারণ করলেন।

চতুর্থ অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি অনুপম চক্রবর্তী বলেন, বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম আদালতে ফুল কোর্ট রেফারেন্স থাকায় রায় ঘোষণা করা হয়নি। বিচারক আগামী রোববার রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

হিমু পাঁচলাইশ আবাসিক এলাকার ১ নম্বর সড়কের ইংরেজি মাধ্যমের সামারফিল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজের ‘এ’ লেভেলের শিক্ষার্থী ছিল। এলাকায় মাদক ব্যবসার প্রতিবাদ করায় ২০১২ সালের ২৭ এপ্রিল নগরীর পাঁচলাইশ এলাকায় টিপুর বাড়ির ছাদ থেকে হিংস্র কুকুর লেলিয়ে ও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয় শিক্ষার্থী হিমুকে। আহত অবস্থায় ২৬ দিন চিকিৎসা নেয়ার পর ২৩ মে তার মৃত্যু হয়।

হিমু খুনের ঘটনায় তার মামা শ্রীপ্রকাশ দাশ বাদি হয়ে পাঁচলাইশ থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন। ২০১২ সালের ৩০ অক্টোবর পুলিশ পাঁচজনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়।

আসামিরা হলেন- জাহিদুর রহমান শাওন, জুনায়েদ আহমেদ রিয়াদ, তার বাবা শাহ সেলিম টিপু, শাহাদাত হোসেন সাজু ও মাহবুব আলী ড্যানি। এদের মধ্যে টিপু ও সাজু জামিনে আছেন। শাওন জামিন নিয়ে এবং রিয়াদ শুরু থেকেই পলাতক। শুধু ড্যানি কারাগারে আছেন।

অভিযোগপত্র দেয়ার প্রায় দেড় বছর পর অভিযোগ গঠনের শুনানি চারবার পিছিয়ে ২০১৪ সালের বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। ২০১৪ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।