• আজ শুক্রবার, ২৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ ৷ ৯ ডিসেম্বর, ২০২২ ৷

দেশের অপরাধ ও জঙ্গিবাদ নির্মূলে গ্রাম পুলিশের ভূমিকা অপরিসীম: পুলিশ অফিসার মুসা


❏ শনিবার, আগস্ট ১৩, ২০১৬ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

বান্দরবান ঘুরে, জামাল জাহেদ- পার্বত্য চট্রগ্রামের গুরুত্বপুর্ন পর্যটন জেলা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে তদন্ত কেন্দ্রের নবাগত ইনচার্জ কক্সবাজার মহেশখালীর কৃতিসন্তান (উপ পরিদর্শক) মোঃ আবু মুছা যোগদান করেন।

যিনি কক্সবাজার তথা চট্রগ্রাম জেলার সাহসী পুলিশ অফিসার হিসাবে বার বার আলোচিত নাম। বিগত স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বিএনপি জামায়াতের একাধিক কেন্দ্র দখলের হাত থেকে সুরক্ষিত করেন নির্বাচন কর্মকর্তাসহ ভোটারদের।unnamedআলোচিত পুলিশ অফিসার আবু মুসা যোগদান করেই ইউনিয়নে বাইশারীতে অবস্থিত আনসার-ভিডিপি ও গ্রাম পুলিশ সদস্যদের সাথে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক পরিস্থিতি নিয়ে এক জরুরী সভা আয়োজন করেছেন।

শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত তদন্ত কেন্দ্রের হলরুমে অনুষ্ঠিত আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক জরুরী সভায় উপস্থিতিদের মাঝে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখতে গিয়ে আবু মুছা বলেন, চুরি, ডাকাতি, খুন খারাপি, নাশকতা ও জঙ্গীবাদ নির্মূলে আনসার-ভিডিপি ও গ্রাম পুলিশের ভূমিকা অপরিসীম।

সমাজে সন্ত্রাস, নির্মূলে পুলিশ বাহিনীকে সর্বাত্বক সহযোগিতা এবং তথ্য প্রদানের প্রতি গুরুত্ব দেওয়া কথা উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, পুলিশ জনগনের সেবা দিতে সর্বদা প্রস্তুত রয়েছে। তাছাড়া বাইশারীতে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নতি করতে ইতিমধ্যে ওয়ার্ড মেম্বার ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে প্রতিটি ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

আনসার ভিডিপি ও গ্রাম পুলিশের পক্ষে দফাদার নুরুল আমিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, তারা এখন অসহায়। ডিউটি করার মত সরঞ্জাম, পোষাক, জুতাসহ অনেক কিছু অভাব রয়েছে। যার কারণে তারা সমাজে অবহেলিত।

নবাগত ইনচার্জ মোঃ আবু মুছা আনসার-ভিডিপি ও গ্রাম পুলিশের বিষয়টি আগামী ১৪ই আগষ্ট পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং (এমপি) মহোদয় বাইশারীতে সফরে আসলে জানিয়ে দিবেন বলে আশ্বস্থ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের সহকারী ইনচার্জ এ.এস.আই. ওমর ফারুক, এ.এস.আই. সোলেমান ভূঁইয়া, গ্রাম পুলিশের দফাদার নুরুল আমিন, আনসার-ভিডিপি ইউনিয়ন কমান্ডার মোঃ কালু। এছাড়া ইউনিয়নের আনসার-ভিডিপি ও গ্রাম পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২ মাসের ব্যবধানে বাইশারীতে পরপর দুইটি হত্যাকান্ড সংঘটিত হওয়ায় প্রশাসনে নিরাপত্তার পাশাপাশি নবাগত ইনচার্জ মোঃ আবু মুছা ১লা আগষ্ট যোগদানের পর থেকে গ্রাম, পাড়া, মহল্লা, বাজার, বৌদ্ধ মন্দির সহ অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তা কমিটি গঠনের মাধ্যমে রাত্রিকালীন পাহারা বসিয়ে নিরাপত্তা জোরদার করেছেন। যাতে আর এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয়। সেজন্য তিনি সকলের নিকট সহযোগিতা কামনা করেন।