🕓 সংবাদ শিরোনাম

কুড়িগ্রামের সেই ডিসির ‘লঘুদণ্ড’ মওকুফবুয়েটের ছাত্র আবরার হত্যা মামলার রায় রোববারইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন একই পরিবারের ৫ জনটাঙ্গাইলের নাগরপুরে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গুলিবর্ষণ: নিহত ১, আহত ২সোনারগাঁয়ে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের বিজয়ী করতে দিনরাত গণসংযোগআকাশে উড়ন্ত চাকি কি ভিনগ্রহীদের ? নাকি শত্রু যান তদন্তে পেন্টাগনকদবেল খাওয়ার প্রলােভন দেখিয়ে বাথরুমে নিয়ে শিশু ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তারআত্মস্বীকৃত ইয়াবা সম্রাট এনামের কোটি টাকার চালান যায় নরসিংদীতেস্কাউটের সর্ব্বেচ্চ পদক শাপলা কাব অ্যাওয়ার্ড পেলেন মির্জাপুরের ১৬ শিক্ষার্থীমতলবের নির্বাচনে অতিরিক্ত ১০ প্লাটুন র‍্যাব ও বিজিবি, থাকবে কোস্টগার্ডও

  • আজ শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২১ ৷

রাশিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ তুলে নিল ইরান


❏ রবিবার, আগস্ট ১৪, ২০১৬ আন্তর্জাতিক

4bk875bd524da6c56p_800C450


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ইস্যুতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ তুলে নিয়েছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। ইরানের জাতীয় নিরাপত্তা ও পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মাদ ইব্রাহিম রেজায়ি এ কথা জানিয়েছেন।

রেজায়ি বলেন, বর্তমান সময়ে এ অঞ্চলে রাশিয়া হচ্ছে ইরানের প্রধান মিত্র এবং দু দেশের মধ্যে সম্পর্ক দিন দিন বাড়ছে। গত কয়েক বছরে দু দেশ তাদের মধ্যকার মতপার্থক্য নিরসনের চেষ্টা করেছে এবং এর মধ্যে এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার ইস্যুটিও ছিল।

ইরানের এ সংসদ সদস্য বলেন, “বিগত বহু বছর ধরে ইরান পশ্চিমা দেশগুলোর অন্যায় নিষেধাজ্ঞার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছিল এবং সে কারণে এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হস্তান্তরের বিষয়ে রাশিয়া চুক্তিমতো তার নিজের দায়িত্ব পালন করতে পারে নি। ফলে ইরান তার নিজের অধিকার রক্ষার জন্য এবং এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা হস্তান্তরে দেরির কারণে রাশিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। এখন প্রায় এক বছর ধরে আমরা দেখছি এস-৩০০ বিষয়ক চুক্তি সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করছে রাশিয়া। মস্কোর এ ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির কারণে তেহরান তার অভিযোগ তুলে নিয়েছে।”

ইব্রাহিম রেজায়ি বলেন, ইরানের পক্ষ থেকে নেয়া এ পদক্ষেপের ফলে নিশ্চয় দু দেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরো গভীর হবে।

এর আগে, ইরানে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত মস্কোর বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ তুলে নিতে তেহরানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, চুক্তি অনুযায়ী এরইমধ্যে মস্কো এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার প্রায় অর্ধেক হস্তান্তর করেছে এবং চুক্তি বাস্তবায়নের কাজ ভালোভাবেই এগিয়ে চলেছে। কাজেই মস্কোর বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ তুলে নেয়ার এখনই সেরা সময়।

২০০৫ সালে এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরবরাহের বিষয়ে ইরান ও রাশিয়ার মধ্যে ৮০ কোটি ডলারের চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী, এ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ২০০৭ সালের মধ্যে সরবরাহ করার কথা ছিল এবং এ জন্য তেহরান প্রাথমিকভাবে মস্কোকে ১৬ কোটি ৮০ লাখ ডলার পরিশোধ করেছিল। কিন্তু, রাশিয়া চুক্তি অনুসারে ইরানকে এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরবরাহ করে নি, উল্টো রুশ প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ ২০১১ সালে বলেছিলেন, মস্কো এ চুক্তি বাস্তবায়ন করবে না। কারণ হিসেবে তিনি ইরানের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের চতুর্থ দফা অবরোধ আরোপের কথা জানিয়েছিলেন। এ প্রেক্ষাপটে ইরান আন্তর্জাতিক নালিশ আদালতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করে।