🕓 সংবাদ শিরোনাম

বুয়েটের ছাত্র আবরার হত্যা মামলার রায় রোববারইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন একই পরিবারের ৫ জনটাঙ্গাইলের নাগরপুরে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গুলিবর্ষণ: নিহত ১, আহত ২সোনারগাঁয়ে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের বিজয়ী করতে দিনরাত গণসংযোগআকাশে উড়ন্ত চাকি কি ভিনগ্রহীদের ? নাকি শত্রু যান তদন্তে পেন্টাগনকদবেল খাওয়ার প্রলােভন দেখিয়ে বাথরুমে নিয়ে শিশু ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তারআত্মস্বীকৃত ইয়াবা সম্রাট এনামের কোটি টাকার চালান যায় নরসিংদীতেস্কাউটের সর্ব্বেচ্চ পদক শাপলা কাব অ্যাওয়ার্ড পেলেন মির্জাপুরের ১৬ শিক্ষার্থীমতলবের নির্বাচনে অতিরিক্ত ১০ প্লাটুন র‍্যাব ও বিজিবি, থাকবে কোস্টগার্ডওকক্সবাজারে কিশোর গ্যাং লিডার তারেকসহ ৮ সদস্য আটক

  • আজ শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২১ ৷

ফুলবাড়ীতে ৭ বছর ধরে ঝুঁকিপুর্ণ শ্রেণিকক্ষে চলছে পাঠদান


❏ রবিবার, আগস্ট ১৪, ২০১৬ দেশের খবর, রংপুর

অনীল চন্দ্র রায়, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের গোরক মন্ডপ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবনের ছাদে বিভিন্ন অংশে বড় বড় ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। পলেস্তারা খুলে পড়েছে কোন কোন অংশের মধ্যে। তিনটি শ্রেণী কক্ষসহ অফিস কক্ষের ফাটলগুলো আরও স্পষ্ট হলেও কক্ষ সংকটের কারনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রায় ৭ বছর থেকে পাঠদান করছে শিক্ষার্থীরা। যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা করছেন শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবকসহ এলাকাবাসী।school Photo==14

সরেজমিনে গেলে দেখা যায়, ৪২০ জন শিক্ষার্থীর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুইটি পাকা একতলা ভবন রয়েছে। একটি নতুন ও একটি পুরাতন । পুরাতন ভবনে অফিস কক্ষসহ তিনটি শ্রেণী কক্ষ আছে এবং নতুন ভবনে দুইটি শ্রেণী কক্ষে শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রম চলছে। ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী বিউটি, রাসেল, আয়শা জানায়, ছাদের ফাটলের কারণে ভয় ভয় করে আমরা ক্লাস করছি। কিন্তু টেনশন একটায় কখন যে ছাদ মাথার উপর পড়ে যায় এ জন্য ক্লাসে সময় পড়ায় মন বসে না।

এব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোত্তালেব হোসেন প্রতিবেদককে জানান, ১৯৯৪ সালে এল জি ই ডি বাস্তবায়ন করে। পরে দুই কক্ষ বিশিষ্ট আরো একটি ভবন নির্মিত হলেও পাঁচটি শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের জায়গা সংকুলান হচ্ছে না। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে একাধিকবার লিখিত এবং মৌখিকভাবে জানানোর পরও কেন পদক্ষেপ না নেয়ায় বাধ্য হয়ে পুরাতন ভবনেই ক্লাস করাতে হয়।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার স্বপন কুমার অধিকারী প্রতিবেদককে জানান, দ্রুতগতিতে ঝুকিপুর্ণ প্রতিষ্ঠান গুলো তালিকা করে আমাদের উর্ধতন কর্তপক্ষকে জানানো হবে। তবে সামনে বরাদ্দ পেলে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে ।