সংবাদ শিরোনাম

পণ্যবাহী ট্রাক-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১খালেদার জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি নেই, হয়নি বিদেশ যাওয়ার সিদ্ধান্তওপ্রধানমন্ত্রী কোরআন-সুন্নাহর বাইরে কিছু করেন না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীমির্জাপুরে গণহত্যা দিবস উপলক্ষে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনশনিবার থেকে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনাস্পুটনিক-৫ টিকা একে-৪৭’র মতো নির্ভরযোগ্য: পুতিনডোপটেস্টো রিপোর্ট: স্পিডবোটের চালক শাহ আলম মাদকাসক্তচাঁদপুরে ঐতিহাসিক বড় মসজিদে লক্ষাধিক মুসল্লির সালাতে ‘জুমাতুল বিদা’ রাঙামাটিতে ডিবির অভিযানে ইয়াবাসহ দুই চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী আটক! আনসার ব্যাটালিয়ান সদস্যদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষ : নারীসহ ৯জন আহত

  • আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইদহে চিত্রা নদী থেকে মৎস ব্যবসায়ীর জালে ধরা পড়লো বিরল প্রজাতির মাছ

১:৩১ অপরাহ্ন | সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০১৬ খুলনা, দেশের খবর

আরাফাতুজ্জামান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের চাপালী গ্রামের মৎস ও পোল্ট্রি ব্যবসায়ী আকুল হোসেনের জালে গতকাল রাতে বিরল প্রজাতির একটি মাছ ধরা পড়েছে। আকুল হোসেন তার বাড়ির পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া চিত্রা নদীতে জাল ফেলে মাছটি ধরেন। বিরল এ প্রজাতির মাছটি দেখতে এলাকার শত শত উৎসুক মানুষ তার বাড়িতে ভিড় জমায়। সংবাদ পেয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মানোয়ার হোসেন মোল্লা মাছটি দেখতে রাতেই ওই মৎস ব্যবসায়ীর বাড়িতে যান।

mas

মাছটির মাথার অংশ দেখতে অনেকটা টেপা মাছের মতো। তবে এটি শৈল মাছের মতো লম্বা। মাছের সমস্ত শরীরে ডোরাকাটা দাগ ও সাদা-কালো ফোটায় পরিপূর্ণ। আকুল হোসেন বলেন, ‘রবিবার রাত আটটার দিকে বাড়ির পাশের নদীতে জাল ফেললে এই অপরিচিত মাছটি ধরা পড়ে। আমি এ ধরনের মাছ আগে কখনো দেখিনি। এলাকার অনেক লোক মাছটি দেখতে আসছে। সবাই বলছে, তারা আগে কখনো এ ধরনের মাছ দেখেনি। কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মানোয়ার হোসেন মোল্লা এটিকে ‘সাকার ফিশ’ বলে শনাক্ত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘গত বছর একজন জেলে দুটি সাকার ফিশ পেয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলকার নায়নের কাছে নিয়ে যান। তখন মাছ দুটি সদর উপজেলা পরিষদের পুকুরে ছেড়ে দেওয়া হয়। অনুমান করা যেতে পারে, এ প্রজাতির মাছ ঝিনাইদহ অঞ্চলের নদীতে বা অন্য জলাশয়ে আরো আছে।’ তিনি বলেন, ‘মাছটি আকুল হোসেন যত্নে রেখেছেন। পরে এটিকে নদীতে ছেড়ে দেওয়া হবে যাতে সে তার সঙ্গীদের সাথে একত্রে থাকতে পারে।’

তবে তথ্যভান্ডার উইকিপিডিয়ায় বলা হয়েছে, এই মাছটির নাম হলো ‘সুইপার ফিস’। এদের বসবাস পশ্চিম আটলান্টিক মহাসাগর এবং ইন্দো প্যাসিফিক মহাসাগরে। এছাড়া এ প্রজাতির মাছের বসবাস দেখা যায় জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার আশপাশের এলাকায়।