🕓 সংবাদ শিরোনাম

বুয়েটের ছাত্র আবরার হত্যা মামলার রায় রোববারইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন একই পরিবারের ৫ জনটাঙ্গাইলের নাগরপুরে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গুলিবর্ষণ: নিহত ১, আহত ২সোনারগাঁয়ে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের বিজয়ী করতে দিনরাত গণসংযোগআকাশে উড়ন্ত চাকি কি ভিনগ্রহীদের ? নাকি শত্রু যান তদন্তে পেন্টাগনকদবেল খাওয়ার প্রলােভন দেখিয়ে বাথরুমে নিয়ে শিশু ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তারআত্মস্বীকৃত ইয়াবা সম্রাট এনামের কোটি টাকার চালান যায় নরসিংদীতেস্কাউটের সর্ব্বেচ্চ পদক শাপলা কাব অ্যাওয়ার্ড পেলেন মির্জাপুরের ১৬ শিক্ষার্থীমতলবের নির্বাচনে অতিরিক্ত ১০ প্লাটুন র‍্যাব ও বিজিবি, থাকবে কোস্টগার্ডওকক্সবাজারে কিশোর গ্যাং লিডার তারেকসহ ৮ সদস্য আটক

  • আজ শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৭ নভেম্বর, ২০২১ ৷

১৫ হাজার শিক্ষক পদের জন্য ১৩ লাখ প্রার্থীর আবেদন


❏ সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর – বেসরকারি বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১৫ হাজার শূন্যপদের জন্য ১৩ লাখ প্রার্থী আবেদন করেছেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

তিনি বলেন, সারা দেশের স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও সমপর্যায়ের কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শূন্যপদে ১৫ হাজার শিক্ষকের চাহিদা পেয়েছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। এ পরিপ্রেক্ষিতে জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে সাড়া দিয়ে অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ ১০ আগস্ট পর্যন্ত ১৩ লাখ আবেদন জমা পড়ে। এসব আবেদন যাচাই-বাছাই করে এনটিআরসিএ শূন্যপদের বিপরীতে শিক্ষক নিয়োগ দিতে যাচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ এ প্রক্রিয়ায় নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের নিয়োগপত্র ইস্যু করবে। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতা থাকবে না। দেশে ৩৭ হাজার এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিচ্ছিন্নভাবে ৩৭ হাজার কমিটির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ করা হতো। শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা এর আগেও হয়েছে। তখন সার্টিফিকেট দেয়া হতো। এ নিয়ে বিভিন্ন পর্যায় থেকে নানা অনিয়মের অভিযোগও আছে। কিন্তু এবারই আমরা শিক্ষানীতির আলোকে একটি মানসম্মত উপায়ে পরীক্ষা নিচ্ছি। এ ক্ষেত্রে গত মে-জুনে এমসিকিউ পদ্ধতিতে প্রথম প্রিলিমিনারি টেস্ট হয়েছে। প্রিলিমিনারি টেস্টে উত্তীর্ণদের এখন লিখিত পরীক্ষা হচ্ছে।

nahid 15

এই লিখিত পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হবেন, তাদের শিক্ষক হওয়ার জন্য পদায়ন করা হবে। খুব দ্রুত লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে। এরপর মৌখিক পরীক্ষাসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া শেষ করে আগামী অক্টোবরের শেষ দিকে চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণদের ফলাফল প্রকাশ করা হবে। চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণদের মধ্য থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চাহিদা অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী।