🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ২৯ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ১২ মে, ২০২১ ৷

‘কে যেন বলত দুই সন্তানকে হত্যা করতে’

❏ সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০১৬ আলোচিত বাংলাদেশ, স্পট লাইট

স্টাফ রিপোর্টার, সময়ের কণ্ঠস্বর – রাজধানীর বাসাবো এলাকায় দুই শিশু নিহত হওয়ার ঘটনায় শিশুদের বাবা মাহবুব রহমান তার স্ত্রী তানজিনা রহমানকে একমাত্র আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নিহত দুই শিশু হুমায়রা বিনতে মাহবুব তাকিয়া (৬) ও মাশরাফি ইবনে মাহবুব আবরার (৭)। ‘ষড়ঋতু’ নামের ছয়তলা ভবনটির চিলেকোঠায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর তাদের মা তানজিনা রহমান বাসা ছেড়ে চলে যান। পরে বাসার কাছ থেকে তাকে আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করতে তানজিনাকে ৫ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদে মা তানজিনা রহমান জানান, ‘নিজ সন্তানকে হত্যা করলে ভালো হয়ে যাব। কে যেন বলত দুই সন্তানকে হত্যা করতে। তাই আমার দুই সন্তানকে আমি হত্যা করি।’

তবে পুলিশ ধারণা করছে, মানসিক সমস্যা থাকায় তিনি এমন কথা বলছেন।

সবুজবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল কুদ্দুস ফকির বলেন, তানজিনা যে ওই দুই শিশুকে হত্যা করেছে, তা অনেকটাই নিশ্চিত। তারপরও তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে তার মানসিক সমস্যা আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে আদালতকে অবহিত করা হবে। এরপরই তার ব্যাপারে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নারী কনস্টেবলের হেফাজতে থানায় রাখা হয়েছে দুই শিশু হত্যার অন্যতম সন্দেহভাজন আসামি মা তানজিনা রহমানকে। শনিবার রাত থেকেই ওসিসহ পুলিশের বিভিন্ন সদস্য তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

child-murder101-2-1

ওসি জানান, কী কারণে তানজিনা দুই সন্তানকে হত্যা করেছেন, জানতে চাওয়া হলে প্রথমে তানজিনা চুপ মেরে থাকেন। এদিক-সেদিকে তাকান। অনেকক্ষণ পর তিনি একই কথা বারবার বলতে থাকেন।

ওসি আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদে তানজিনা বলেন, ‘রাতে মাঝেমধ্যে আমাকে কে যেন বলত মানসিক সমস্যা থেকে বাঁচতে হলে দুই সন্তানকে হত্যা করতে হবে। তাহলে রক্ষা পাওয়া যাবে। এ থেকেই সন্তানদের হত্যার কথা চিন্তা করি। বাসায় থাকা চাপাতি দিয়ে তাদের হত্যা করি।’

তানজিনা মাঝেমধ্যে হেসে উঠছেন। বেশির ভাগ সময়ই চুপ মেরে থাকেন। আর এসব একজন মানসিক সমস্যাগ্রস্ত মানুষ করে থাকে বলে ওসি আব্দুল ফকির মনে করেন। তানজিনা তথ্য না দেওয়ায় হত্যার সম্ভাব্য অন্য কারণগুলোরও তদন্ত করা যাচ্ছে না বলে জানান তিনি।

নিহত দুই শিশুর স্বজনেরা দাবি করে আসছেন, তানজিনা মানসিক রোগী। এ কারণে তার চিকিৎসাও চলছে।

শুক্রবার রাতে উত্তর বাসাবোর ১৫৭/২ নম্বর ছয়তলা ভবনের চিলেকোঠায় দুই ভাই-বোনের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মা তানজিনা রহমানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রাতেই শিশুদের বাবা মাহবুব মামলা করেন। মামলায় তানজিনাকে আসামি করেন তিনি।